সংবাদ সারাদেশ

প্লাস্টিকের ঝুড়িতে কাঁথায় মোড়ানো নবজাতক উদ্ধার

চলমান ডেস্ক: পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় প্লাস্টিকের ঝুড়িতে ফেলে যাওয়া এক নবজাতক কন্যা শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে শহরের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতুর বাসার পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় প্লাস্টিকের ঝুড়িতে কাঁথা দিয়ে মুড়িয়ে কে বা কারা ওই নবজাতককে ফেলে রেখে যায়। পরে রাত ১টার দিকে শিশুটি উদ্ধারের পর পুলিশে খবর দিলে পুলিশ প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শিশুটিকে পুনরায় ওই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের জিম্মায় রাখে।

শুক্রবার দুপুরে গলাচিপা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতু জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে বাসায় এসে ঘুমাতে যান। তখন বাইরে অনেকক্ষণ ধরে ছোট শিশুর কান্না শুনতে পান। সময় দরজা খুলে বাইরে গিয়ে দেখেন থাকার ঘরের পাশে পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের ঝুড়ির মধ্যে কাঁথা মোড়ানো একটি নবজাতক। প্রথমে ভয় পেয়ে লোকজন ডেকে শিশুটিকে উদ্ধার করেন। পরে নবজাতকটি থানায় নিয়ে গেলে ওসি শিশুটিকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য নিতুর সঙ্গে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

বিষয়টি নিয়ে নিতু গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং থানা পুলিশের সঙ্গে আলাপ করলে তারা উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে খবর দেন। এক পর্যায়ে প্রশাসনের সবাই মিলে শিশুটিকে তার জিম্মায় রাখেন।

নিতু বলেন, প্রকৃত অভিভাবক খুঁজে পেলে আইনিভাবে তাদের কাছে তুলে দেবো। না পেলে শিশুটি আমার সন্তান হিসেবে আমার কাছে বড় হবো।

গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মো. মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ধারণা করা হচ্ছে দুই দিন আগে শিশুটির জন্ম হয়েছে। তবে এখন সুস্থ রয়েছে।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. অলিউল ইসলাম বলেন, আপাতত থানায় জিডির পর নবজাতক কন্যা শিশুটিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের কাছে জিম্মা রাখা হয়েছে। রবিবার বরিশাল অফিসের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button