সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশন ৩ দিনের জন্য স্থগিত

সংবাদ চলমান ডেস্ক:
খুলনা রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর শ্রমিকদের ১১ দফা দাবি আদায়ের আমরণ অনশন কর্মসূচি তিন দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) রাতে খুলনার বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সাথে শ্রমিক নেতাদের মতবিনিময়ে এই সিদ্ধান্ত হয়। পরে শ্রমিক নেতারা সাধারণ শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বললে গভীর রাতে সাধারণ শ্রমিকরা এ সিদ্ধান্ত মেনে নেয়।

শুক্রবার রাত ২টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক খলিলুর রহমান।

তিনি জানান, জাতীয় মজুরি কমিশন ২০১৫ বাস্তবায়নে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় আগামী ১৫ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা এবং বিকেল তিনটায় বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনর (বিজেএমসি) সভাকক্ষে শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে সভা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে পাটকল শ্রমিকদের অনশন ধর্মঘট নীতিগতভাবে স্থগিতের ব্যাপারে একমত হয়েছেন পাটকল সিবিএ ও ননসিবিএ নেতৃবৃন্দ। আগামী ৩ দিনের জন্য শ্রমিকদের ধর্মঘট স্থগিত করা হয়েছে। তবে শ্রমিকদের দাবি না মানা হলে ১৭ ডিসেম্বর থেকে আবার আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু হবে।

তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত খুলনার সাতটি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের মধ্যে ক্রিসেন্ট বাদে ছয়টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকদের গণ অনশন প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানা যায়।

শ্রমিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান শ্রমিক নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই এই পাটকল এবং শ্রমিকদের ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় খুলনার বন্ধ হওয়া পাটকলগুলো চালু হয়েছে। এ সরকারের আমলে মজুরি কমিশন ২০১৫ পাশ হয়েছে এবং এ সরকারই তা বাস্তবায়ন করবে।’

প্রতিমন্ত্রী শ্রমিক নেতাদের আরও বলেন, ‘দাবি-দাওয়া পূরণ করতে একটি সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণ প্রেক্ষাপট তৈরি করা দরকার। এজন্য শ্রমিকদের চলমান অনশন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা প্রয়োজন।’

বৈঠকে খুলনার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইউসুফ আলী, শ্রম অধিদপ্তরের পরিচালক মো. মিজানুর রহমান, খালিশপুর শিল্পাঞ্চলের পুলিশ সুপার মো. কাউসার শিকদার, দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আশরাফুল ইসলাম, খুলনার পাটকলগুলো সিবিএ ও ননসিবিএ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে গত মাসের ১৭ নভেম্বর ৬ দিনের কর্মসূচির ডাক দেয় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদ। গত ২৫ নভেম্বর থেকে কর্মসূচি শুরু হয়। সর্বশেষ ১০ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয় আমরণ অনশন। অনশন চলাকালে বৃহস্পতিবার অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করে প্লাটিনাম জুট মিল শ্রমিক আব্দুস সাত্তার (৫৮)।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button