রাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীর গাঙ্গপাড়া উচ্ছেদের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রতিষ্ঠানের নাম বিহিন লিখিতভাবে চলতি মাসের ১৯ তরিখ বৃহস্পতিবার নগরীর শাহ্ মখ্দুম ও চন্দ্রিমা থানাধীন সরকারী গাঙ্গপাড়া খালের উপর এবং শালবাগান বিজিবি মার্কেট হতে খানকা শরীফ ব্রীজ পর্যন্ত সকল প্রকার স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য মাইকিং করা হয়।

সেই সাথে চলতি মাসের ২২ তারিখ রোজ রোববার পর্যন্ত সকল স্থাপনা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নেওয়ার জন্য ঘোষনায় বলা হয়। এই ঘোষনাপত্রে কোন প্রতিষ্ঠানের নাম নেই । নিচে লেখা রয়েছে যথাযথ কর্তৃপক্ষ।

এই ঘোষণা এবং বাড়িঘরসহ সকল স্থাপনা উচ্ছেদের প্রতিবাদে আজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে গাঙ্গপাড়া এলাকার শত শত নারী পুরুষ বিক্ষোভ করেন।

তারা এইভাবে উচ্ছেদ না করার জনব্য কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান। ৭০ বছর বয়সের অধিক আব্দুল মজিদ বলেন, তারা স্বাধীনতার পর থেকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কিছু ও অন্যান্য মাটির এই এলাকায় বসবাস করেন। এখানে এখন ৪০০ পরিবারের প্রায় ৫০০০ লোক বসবাস করেন। মজিবুর মেম্বর নামে একজন তাদের এখানে বসবাস করতে দিয়ে গেছেন।

তিনি বলেন, প্রতিটি বাড়ির হোল্ডিং নম্বর রয়েছে। তারা নিয়মিত সরকারী ট্যাক্স পরিশোধ করছেন। এছাড়াও রয়েছে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ। এত বছর পরে এসে পূর্বে কোন প্রকার নোটিশ না দিয়ে মাত্র তিনদিন সময় দিয়ে উচ্ছেদ এর ঘোষনা দেওয়ার তারা সবাই ক্ষুদ্ধ।

নুরজাহান, মতি বেওয়া, মল্লিকা, আদরী, হাসনা, একরাম আলী, সিদ্দিকা, হান্নান, মনিরুল ইসলাম, লালন, মনা ও জাহানারাসহ উপস্থিত সকলেই বলেন, তাদের এখান থেকে উচ্ছেদ করতে হলে অন্যস্থানে পুনর্বাসন করতে হবে।

তারা আরো বলেন, বর্তমান রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন সিটি নির্বাচনের সময় এই এলাকা কেউ উচ্ছেদ করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু আজ তারা সর্বশান্ত হতে বসেছে। পরিবারের লোকজন নিয়ে কোথায় তারা যাবেন সেই চিন্ততায় গত দুইদিন ধরে কেউ কাজে যাচ্ছেনা।

তারা বলেন, এখানকার প্রতিটি বাড়ি এনজিও ও অন্যান্য স্থান থেকে ঋণ করে করা। প্রতি সপ্তাহে ও মাসে তাদের কিস্তি দিতে হয়। আবার অনেকে অন্যের বাড়িতে কাজ এবং অনেকেই ভিক্ষা করে সামান্য মাথা গোঁজার ঠাঁই করেছেন বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তারা কোনভাবেই তাদের বাড়িঘর ছেড়ে কোথায় যাবে না বলে জানান। সেইসাথে উচ্ছেদের কবল থেকে রক্ষা করতে মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ দিকে অত্র পাড়ার বাসিন্দা রাসিক ১৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান বলেন, ড্রেন করার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড তাদের নিকট থেকে ১৫ফিট জায়গা ছেড়ে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। এতে এখানকার সবাই রাজি। এখন তারা পাড়ার সকলকে উচ্ছেদ করার জন্য নোটিশ দিয়েছে। এই নোটিশ তারা মানেন না এবং জীবন থাকা পর্যন্ত জায়গা ছাড়বেন না বলে জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের যত টুকু জায়গা রয়েছে সেটুকুও নিলে তারা দিতে রাজি আছেন কিন্তু কোন ভাবেই পাড়া উচ্ছেদ করতে দেওয়া হবেনা। তার সঙ্গে উপস্থিত সকল নারী পুরুষ একই কথা বলেন। সেইসাথে বাড়ি ঘর উচ্ছেদ করতে আসলে আমরন অনশন ও অন্যান্য কর্মসূচি পালন করবে বলে জানান সাইদুরসহ এলাকবাসী।

তারা আরো বলেন, রহিঙ্গাদের সরকার নিয়ে এসে এদেশে বসবাস করতে দিচ্ছে। আর জন্মস্থান থেকে তাদের উচ্ছেদ করার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড উঠে পড়ে লেগেছে।

এবিষয়ে রাজশাহী পানি বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কহিনুর আলমের নিকট মোবাইলে জানতে চাইলে অফিস ছাড়া তিনি কোন প্রকার বক্তব্য দেবেন না এবং তাঁর সাথে সাক্ষাত করে বক্তব্য নেওয়ার কথা বলেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button