রাজশাহী সংবাদ

বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের রেমিটেন্সের অবদান অনেক: রাজশাহীতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী     

নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি বলেন, বৈদেশিক কর্মসংস্থান দেশ ও জাতির জন্য অনেক প্রয়োজন। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের রেমিটেন্সের অবদান অনেক। বৈদেশিক কর্মসংস্থাপনের জন্য নতুন নতুন শ্রমবাজার খোঁজা হচ্ছে। আগামীতে চীন হবে অনেক বড় শ্রমবাজার।

আধুনিকায়নকৃত রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর আয়োজনে আজ শুক্রবার সকালে ফলক উন্মোচন, ফিতা কেটে এবং বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এর উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন উপলক্ষে রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, দক্ষ হয়ে বিদেশে গেলে দুই/তিন গুন বেশি বেতন পাওয়া যায়। এজন্য দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে কাজ করছে সরকার। দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার লক্ষ্যে আগামীতে প্রতিটি উপজেলা একটি করে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিদেশ যেতে হবে সব কিছু জেনে, প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে। বিদেশ যাওয়ার ক্ষেত্রে দালালদের ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ সেলিম রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থাপন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও international Cooperation Agency (KOICA) Country Director Mr. Hyungue Jeo.

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ভারতসহ আমাদের পাশ্ববর্তী দেশগুলো দক্ষ জনশক্তি বিদেশে পাঠিয়ে বিপুল পরিমান রেমিটেন্স অর্জন করছে। আমরা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলে ইউরোপ, আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে পাঠাতে পারবো। এজন্য আমি তরুণ-তরুণীদের কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার অনুরোধ করছি। যাতে তোমরা সমাজ ও দেশে অবদান রাখতে পারো।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন প্রকল্প পরিচালক জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) পরিচালক ও KOICA প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ নূরুল ইসলাম। আরো বক্তব্য দেন বিএমইটি এর মহাপরিচালক মোঃ শামছুল আলম ও রাজশাহী জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হক। উদ্বোধনী শেষে আধুনিকায়নকৃত রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ঘুরে দেখেন প্রধান অতিথিসহ সকল অতিথিবৃন্দ।

উল্লেখ্য, দেশ ও বিদেশে শ্রম বাজারের চাহিদা অনুযায়ী যথোপযুক্ত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষকর্মী তৈরি করে অভিবাসীদের উন্নয়ন, নিরাপত্তা ও অধিকার নিশ্চিত করতে আধুনিক কর্মোপযোগী প্রশিক্ষণের সুযোগ তৈরির উদ্দেশ্যে KOICA এবং বিএমইটি এর মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী রাজশাহী টিটিসিকে আধুনিকায়ন করা হয়েছে। রাজশাহী টিটিসি এর আধুনিকায়নে ৮৮ কোটি টাকার মধ্যে ৬৭ কোটি টাকা দিয়েছে এবং বাংলাদেশ সরকার ব্যয় করেছে ২১ কোটি টাকা।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button