মোহনপুররাজশাহী সংবাদ

বর কারাগারে -বিয়ের রেজিষ্ট্রি করালেন কাজী

আজহারুল ইসলাম বুলবুল ; স্ত্রীর যৌতুক মামলা নিয়ে বর হাজতে বাস একই বরের উপস্থিতি ছাড়াই বরের সাক্ষর জালকরে একই মেয়ের সাথে পুনরায় বিয়ে রেজিষ্ট্রি করে বিপাকে পড়েছেন মোহনপুর উপজেলার ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের কাজী মনির উদ্দিন।

জানাগেছে, দুর্গাপুর উপজেলার বহরমপুর গ্রামের আকবরের ছেলে রহিদুলের সাথে ২৩/৪/২০১৮ ইং সনে একই উপজেলার বরিদ বাশাইল গ্রামের আক্তার আলীর মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর সাংসারিক ভাবে বনিবনা না হওয়ায় মেয়ের পক্ষ বেলপুকুর ইউনিয়নের পুর্বের কাজীর রেজিষ্ট্রির চল্লিশ হাজার টাকা মোহরানার মামলা করেন রহিদুলের উপর। সেই মামলায় রহিদুল কারা হাজতে আটক থাকা অবস্থায় একই তারিখ দিয়ে মোহনপুরের ঘাসি গ্রামের কাজী মনির উদ্দিন পুনরায় ৬২ হাজার টাকা নিয়ে নতুন ভাবে দুই লক্ষ ৭৯ হাজার ৫শ টাকার আরেকটি কাবিননামা তৈরি করে দেন। রহিদুল জামিনে মুক্ত হয়ে নতুন কাবিননামা দেখে বিচলিত হয়ে আগের কাবিন ও নতুন কাবিন একই সাথে তার আইনজীবিকে দেখালে তার আইনজীবি হতবাক হন।

কাজি মনির উদ্দিনের নিকট জানতে চাইলে, তিনি সংবাদ চলমান এর নিকট পরের কাবিনের বিষয়টি স্বীকার করেন ও বরের স্বাক্ষর তিনি করেছেন সেটিও জানান, তিনি বিষয়টি প্রকাশ না করার জন্য বলেন । ও রাজশাহী জেলা মুসলিম নিকাহ সমিতির সভাপতি নুরুল আলম কে তিনি ডাকেন, জানতে চাইলে নুরুল আলম জানান, এই বিষয়টি অবশ্যই অনিয়ম তিনি নিয়ম বর্হিভুত কাজ করেছেন তার শাস্তি হওয়া দরকার। মোহনপুর ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের একাধিক ব্যক্তি কাজী মনির উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন তার বেশীর অংশ কাজ এই রকম নিয়ম বর্হিভুত এই নিয়ে এলাকায় শালিস বৈঠক ও হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
Close
Back to top button