রাজশাহীরাজশাহী সংবাদরাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীতে মেয়ের সামনে বাবাকে পিটিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় বাবাকে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে রাজশাহীর কিছু বখাটে।

গতকাল শুক্রবার (১২ আগষ্ট) রাত ৮ টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডের মেহেরচন্ডী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, রাজশাহী মহানগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডের মেহেরচন্ডী এলাকায় সংখ্যালঘু কলেজ ছাত্রীকে বেশ কয়েকদিন ধরে ইভটিজিং করে আসছে একই এলাকার কয়েক বখাটে যুবক।শুক্রবার রাতে ওই কলেজ ছাত্রী তার বাবা-মায়ের সাথে বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশন থেকে বাসায় ফেরার পথে ওই কলেজছাত্রীকে ইভটিজিং করে ওই বখাটেরা।এসময় ইভটিজিংয়ে বাধা দিতে আসলে ওই ছাত্রীর বাবাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে গুরুত্বর ভাবে জখম করেছে বখাটে যুবকরা।পরে মেয়েটির বাবাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি রামেক হাসপাতালের ৮ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবার মাথা ও শরীরে ১৬টি শেলায় দেয়া হয়।

ওই কলেজ ছাত্রীকে হামলাকারি বখাটেদের মধ্যে রয়েছে, একই এলাকার সামাদ মাস্টারের ছেলে প্রিন্স, মোস্তফার ছেলে রায়হান, ইউসুফ খানের ছেলে মিরাজ, আক্তারের ছেলে রবিন, আলঙ্গীরের ছেলে শাকিল মৃত ইন্তাজ আলীর ছেলে ফরহাদ,।

আহত মেয়ের বাবা জানান, মেয়েকে ইভটিজিংয়ে প্রতিবাদ করায় স্ত্রী ও মেয়ের সামনে তাকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। এ সময় বখাটেরা তার কাছ থেকে টাকা ছিনতাই ও সোনার চেন ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয় তাদের উদ্ধার করে।

এই বিষয়ে ইভটিজিংয়ের শিকার কলেজ ছাত্রী জানান, কয়েকদিন ধরে একই এলাকার কয়েকজন বখাটে ছেলে আমাকে রাস্তায় ইভটিজিং করে আসছে। শুক্রবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে বাবা মার সামনে বখাটেরা আমাকে অশ্লিল কথা বলে। বাবা এর প্রতিবাদ করায় বখাটেরা হামলা করে বাবাকে মারধর করে। এ সময় তারা গলা থেকে স্বর্ণের চেন ও নগদ ২০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ বিয়য়টি থানায় জানালেও এখন পর্যন্ত কোন মামলা করা হয়নি।

এই ব্যাপারে মতিহার থানার ওসি আনোয়ার হোসেন তুহিন বলেন, বিষয়টি মৌখিক ভাবে জেনেছি তবে এখনো লিখিত অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ওসি।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button