নাটোররাজশাহী সংবাদ

নাটোরে মাইকিং করে কৃষকের বাড়ি ভাঙচুর-লুটপাট

নাটোর প্রতিনিধি: পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রকাশ্য দিবালোকে নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার সীমান্তবর্তী ও নাটোরের সিংড়া উপজেলার ছাতারদিঘী ইউনিয়নের ভুলবাড়িয়া গ্রামের শামীম হোসেন ওরফে বাদশা বাহিনীর লোকজন একই এলাকার কৃষক ফজলুর রহমানের বাড়ি-ঘরে ভাঙচুর, অগ্নি সংযোগ ও লুটপাট চালিয়েছে। এ ঘটনায় সিংড়া ও আত্রাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সিংড়া উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল ভুলবাড়িয়া গ্রামে সরকারি একটি ডোবা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ছাতারদিঘীর শামীম হোসেন বাদশা, বাবু মন্ডল, বাবলু ও জামিল হোসেনের নেতৃত্বে শতাধিক লোক ধারালো অস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষ কৃষক ফজলুর রহমানের বাড়ি-ঘরে অতর্কিত হামলা চালায়।

এ ঘটনায় ওই কৃষকের বাড়ি-ঘরে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও তাণ্ডব চালায় বাদশা বাহিনী ও তার লোকজন। এসময় লিচু, আম ও পেয়ারার ১২টি গাছ কেটে ফেলা হয়। ডোবার (পুকুর) মাছ, শ্যালো মেশিন, টিউবওয়েলসহ বিভিন্ন জিনিস পত্র লুট করে নেয় প্রতিপক্ষরা।

কৃষক ফজলুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ভুলবাড়িয়া মৌজায় নিজ নামীয় সম্পত্তির সাথে ৪০শতক সরকারি ডোবা সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় থেকে ইজারা নিয়ে মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন তিনি। কিন্তু বাদশা বাহিনীর লোকজন ওই ডোবার জায়গা দখলের চেষ্টা করে আসছিল। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় তাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শামীম হোসেন বাদশার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

অপর অভিযুক্ত বাবু মন্ডল বলেন, তিনি অসুস্থ। এই হামলার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

সিংড়া থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী বলেন, পূর্বে একটি মারামারিকে কেন্দ্র করে ফজলুর রহমান নামের এক কৃষকের বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।