সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

নিজের বিয়ে বন্ধ করল স্কুলছাত্রী

রিতা আহমেদ: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে নিজের বাল্যবিয়ে রুখে দিয়েছে লামিয়া নামের এক স্কুল ছাত্রী। লামিয়া উপজেলার বালুরচর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী এবং চর আলেকজান্ডার ইউনিয়নের সবুজগ্রাম এলাকার মো. ছাইফুল্যার মেয়ে। বুধবার তার বিয়ে হওয়ার কথা থাকলেও ওই ছাত্রীর সাহসী ভূমিকা ও বুদ্ধিমত্তায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তা বন্ধ হয়ে যায়।

জানা গেছে, উপজেলার হাজীগঞ্জ এলাকার এক ছেলের সঙ্গে লামিয়ার পরিবার তার বিয়ে ঠিক করেন। এতে লামিয়া এত কম বয়সে বিয়েতে রাজি নয় বলে পরিবারকে জানালেও তারা বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের কথা চূড়ান্ত করেন। উপায় না পেয়ে লামিয়া মঙ্গলবার দুপুরে কৌশলে বাড়ি থেকে বের হয়ে প্রতিবেশী এক বান্ধবীর বাড়ি গিয়ে ওঠে। সেখান থেকে বান্ধবীর বোরকা পরে ছুটে যায় বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষককে না পেয়ে অন্য শিক্ষকের মুঠোফোন থেকে প্রধান শিক্ষককে বিষয়টি অবগত করে। এ সময় কান্নাকাটির একপর্যায়ে প্রধান শিক্ষক তাকে বিয়ে বন্ধের ব্যাপারে আশ্বস্ত করলে সে বাড়ি ফিরে যায়। পরে প্রধান শিক্ষক ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানান। খবর পেয়ে ওই দিন সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) মো. আব্দুল মোমিন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মিনার উদ্দিন ও প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুছ সালামকে সঙ্গে নিয়ে ছাত্রীটির বাড়িতে গিয়ে হাজির হন। তখন লামিয়ার বাড়িতে বিয়ের আয়োজনের প্রস্তুতি চলছিলো। তবে, ইউএনও’র উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় লামিয়ার বাবা-মাসহ পরিবারের সদস্যরা। পরে ইউএনও তাদেরকে ডেকে এনে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন এবং প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত লামিয়াকে বিয়ে দেওয়া হবে না-এই মর্মে তাদের কাছ থেকে মুচলেকা নেন। এমনকি লামিয়াকে বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ করে দেওয়ার পাশাপাশি তার লেখাপড়ার জন্য সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন।

বালুরচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুছ সালাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লামিয়া তার বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির মানবিক শাখার মেধাবী শিক্ষার্থী। সদ্য প্রকাশিত জেএসসি পরীক্ষায় সে ভালো ফলাফল করেছিল। তার এ সাহসী ভূমিকার অন্যদের জন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মোমিন বলেন, ‘ছাত্রীটি নিজেই নিজের বাল্যবিয়ে ঠেকাতে যে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। লেখাপড়া চালিয়ে নিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করা হবে।’

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button