বিনোদন

আবারো বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন, অপু বিশ্বাস!

সংবাদ চলমান ডেস্কঃ শাকিব খান ভালোবেসে গোপনে বিয়ে করেছিলেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে। গোপনেই চলে তাদের সংসার। কিন্তু অপু বিশ্বাস গর্ভবতী হলেই আড়ালে চলে যান। এরপর ২০১৭ সালে একটি টেলিভিশন লাইভে পুত্র আব্রাম খান জয়কে নিয়ে হাজির হন অপু। যা ভালোভাবে নিতে পারেননি শাকিব।

অতঃপর সব জানাজানির পর এই তারকা দম্পতির বিচ্ছেদ। পরবর্তীতে পুত্র জয়কে মেনে নিলেও ঘরে তোলেনি অপুকে। বিচ্ছেদের মাধ্যমে সংসারের ইতি টানেন এ তারকা দম্পতি। শাকিবকে বিয়ে করার পরই হিন্দু ধর্ম ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন ঢালিউডের এই লাস্যময়ী তারকা।

তবে ছাড়াছাড়ির বছর দুই পর অপুর মনে হচ্ছে, সুযোগ থাকলে আবারো তিনি ইসলাম ধর্ম ছেড়ে হিন্দু ধর্মে ফিরে যাবেন।

এ ব্যাপারে অপুর ভাষ্য, আমি একজন সনাতন ধর্মের মেয়ে ছিলাম। শাকিবকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি। এখন বিচ্ছেদের পর অপশন থাকলে হয়তো আবারো সনাতন ধর্মে ফিরে যেতাম। কিন্তু এখন আমার সবচেয়ে বড় অপশন আমার ছেলে। ছেলের জন্য আমি ইসলাম ধর্মই পালন করবো।

শাকিবের সঙ্গে গোপনে ঘরসংসার অতঃপর বিচ্ছেদের পরও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে অপুর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ নিয়ে কথা উঠে। সম্প্রতি কথা হচ্ছে তার দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে।

আবারো বিয়ে করার পরিকল্পনা আছে কিনা নায়িকার এ ব্যপারে জানতে চাইলে অপু বিশ্বাস সরাসরি না বললেও বিয়ের ইঙ্গিত দিয়েছেন। প্রতিটি ক্ষেত্রে পরিবারের সহযোগিতা পেয়েছেন, তাই তারা যা চাইবেন সে ইচ্ছাই পূরণ করবেন বলে জানান।

বিয়ে নিয়ে পরিকল্পনা কী জানতে চাওয়া হলে অপু বলেন, এখনো বিষয়টি ঠিক হয়নি। তবে পরিবার আমাকে বরাবরই সাহায্য করেছে। যেহেতু আমি সবসময়ই আমার পরিবারকে পাশে পেয়েছি এমনকি আমার এই ধর্মান্তর হওয়ার বিষয়টিও তারা মেনে নিয়েছে তাই এখন এ ব্যপার ভেবে দেখবো।

তবে অপু বিশ্বাস বলেন, সব ধর্মের প্রতি আমার শ্রদ্ধা রয়েছে। আমি শাকিবের কথা ভেবে মনে প্রাণেই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলাম। কিন্তু আমার বাবা-মার সঙ্গে থেকে তো আমি ওটা পালন করতে পারি না।

অপু বলেন, তবে আগামী দিনে পরিকল্পনা আছে পারিবারিকভাবেই কিছু একটা করার। কারণ আমি গরুর মাংস খেয়ে বা হজ্ব করে মুসলিম হইনি। একজনকে ভালোবেসে মুসলিম ধর্মকে সম্মান দেখিয়েছি, আজও দেখাই।

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। ২০১৬ সালে ১০ এপ্রিল একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রাম খান জয়কে সঙ্গে নিয়ে বিয়ে ও সন্তানের ব্যাপারে প্রথম মুখ খোলেন অপু। এর কয়েক মাস পরেই তাদের বিচ্ছেদ হয়।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button