নাটোররাজশাহী

নাটোরে শ্রমিককে শিকলে বেঁধে নির্যাতন, গ্রেপ্তার ২

নাটোর প্রতিনিধি :  নাটোরের গুরুদাসপুরে ইটভাটার শ্রমিককে শিকলে বেঁধে তিনদিন ধরে নির্যাতন চালানোর ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হওয়ায় ভাটার ম্যানেজার মো. স্বপন ও আবু শামা নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নির্যাতনের শিকার শ্রমিক রাম বসাক (৩৫) পার্শ্ববর্তী তাড়াশ উপজেলা সদরের ছুটু বসাকের ছেলে।

অভিযোগ ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সাহাপুর গ্রামের এএসবি ব্রিকস নামে আব্দুর রহিম মোল্লার ইটভাটায় মাটি তৈরির কাজ করতেন শ্রমিক রাম বসাক। অভাবে পড়ে বর্ষা মৌসুমে ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে সিরাজুল ইসলাম নামে এক সর্দারের মাধ্যমে অগ্রিম শ্রম বিক্রি করেন তিনি। চার মাস আগে কাজ করে ১৫ হাজার টাকা শোধ দিয়েছেন। কিন্তু সর্দার সিরাজুলসহ কিছু শ্রমিক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে শিকলবন্দী করে নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনায় ছুটু বসাক গুরুদাসপুর থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ শনিবার গভীর রাতে ওই দুইজনকে গ্রেপ্তার করে।

ইটভাটা মালিক আব্দুর রহিম মোল্লা দাবি করেন, তার ভাটায় কাজ করার জন্য শ্রমিক সর্দার সিরাজুল ইসলাম অগ্রিম ১৫ লাখ টাকা নিয়েছেন। এর মধ্যে শ্রমিকের কাজ করে নয় লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন। পলাতক সর্দার সিরাজুলকে ধরতেই রাম বসাককে আটকে রাখা হয়েছে। তবে নির্যাতন করা হয়নি।

রাম বসাকের বাবা ছুটু বসাক অভিযোগ করেন, কাজের জন্য শ্রমিক সর্দারের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছিল। সেই টাকা পরিশোধ হলেও ছেলেকে তিন দিন ধরে শিকলে বেঁধে নির্যাতন চালানো হয়েছে।

রবিবার সকালে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তারকৃতদের নাটোর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button