আন্তর্জাতিক

ইরানে ৭ জনের ফাঁসি, অপেক্ষায় ৯০ শিশু

সংবাদ চলমান ডেস্ক :

ইরানের আদালত গত বছরের শুরু থেকে অন্তত ১২ জন শিশু অপরাধীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। সেই সঙ্গে কমপক্ষে ৯০ জন শিশু মৃত্যুর প্রহর গুণছে, পরিণত বয়স হলেই তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

ইরানে নিযুক্ত জাতিসংঘের মানবাধিকার সম্পর্কিত বিশেষ তদন্তকারী কর্মকর্তা জাভেদ রহমান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছেন, দেশটির আদালত গত বছর অন্তত ২৫৩ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। ২০১৩ সাল থেকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে মোট ২১ জন শিশুকে।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালে ৭ শিশু অপরাধীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ইরান সরকার। এটি আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের শামিল। তবে ইরান বলছে, আইন মেনেই তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

ওই শিশুদের যত দ্রুত পরিণত বয়স হবে তাদের মৃত্যুদণ্ড তত দ্রুত কার্যকর করা হবে। ছেলেদের বয়স ১৫ এবং মেয়েদের বয়স ৯ হলে তাদের ক্ষেত্রে এ সময়টুকু নেয়া হয়।

চলতি বছরের গত ১ অক্টোবর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া পাঁচ নম্বর শিশু আসামির নাম জইনব সেকানভান্দ। ১৭ বছর বয়সে নিজের স্বামীকে হত্যা করেন তিনি। আদালতে তার বিচার শুরু করা হয়। তাকে মিথ্যা স্বীকারোক্তি দিতে বাধ্য করা হয়েছিল। তবে কোনো আইনজীবীর কাছে যেতে দেয়া হয়নি জইনবকে।

জাভেদ রহমান বলেন, জইনবের মৃত্যুদণ্ডে তিনি ভীত হয়ে পড়েন। এই বিচার উদ্বেগ তৈরি করেছে। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী শিশুদের মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করার প্রথাটি বাতিল এবং শাস্তি লঘু করার জন্য ইরানের কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছিল।

শিশুদের মৃত্যুদণ্ডের বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনার মিশেল ব্যাচলেট বলেন, এটা অন্যায়।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button