রাজশাহী সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে বিএনপি নেতা মিনুর দুঃখ প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ভারতের সঙ্গে সরকারের চুক্তি প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে গত ১২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করেন বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনু। এর প্রতিবাদে বুধবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এর পরদিন বৃহস্পতিবার ওই বক্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু।
বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, দ্রুত বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি ‘ভুলবশত’ ওই কথা বলে ফেলেছেন। সেটা তার ইচ্ছাকৃত বক্তব্য নয়। মিনু বলেন, একজন সিনিয়র নেতা হিসেবে আমার মুখ দিয়ে এ ধরনের কথা আসা ঠিক হয়নি। এ জন্য সবার কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি। বিশেষ করে আওয়ামী পরিবারের ছোট ভাই ও বোনেরা যারা মনে খুবই হার্ট হয়েছেন, দুঃখ পেয়েছেন। আমিও তাদের সঙ্গে খুবই দুঃখিত।
রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মিনু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্যে করে বলেছিলেন, আপনি তো পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির স্যান্ডেল বহনেরও যোগ্যতা রাখেন না, আবার প্রধানমন্ত্রী মারান!
তার এই বক্তব্য গণমাধ্যমে প্রচারের পর তা নিয়ে ফেসবুকেই প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। আর প্রতিবাদ সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, ভারতের সাথে সরকারের চুক্তিটি যদি দেশবিরোধী হয় তাহলে আর আমরা আওয়ামী লীগ করব না। কিন্তু চুক্তি দেশবিরোধী না হলে মিনুকে রাজশাহীবাসীই এলাকা ছাড়া করবে।
এর পরদিনই দুঃখ প্রকাশ করে মিনু বললেন, রাজশাহী আমাদের শান্তির নগরী। আমরা সবাই শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছি। আমি সিনিয়র লিডার হিসেবে আমার মুখ দিয়ে এই ধরনের বক্তব্য আশা করিনি। এ জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি এবং সবাইকে এই দুঃখ ভুলে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।
এ প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, মিনু সাহেব এখনও ক্ষমা চাননি। ফেসবুকে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এটা কোনো কথা হতে পারে না। তাকে সাংবাদিক সম্মেলন করে ক্ষমা চাইতে হবে। আমি আশা করি, দ্রুত সময়ের মধ্যেই তিনি এটা করবেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button