সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

৫ দিন পর সূর্যের দেখা, বাড়ছে তাপমাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত কয়েকদিনের হাড় কাঁপানো শীতে জবুথবু রাজধানীসহ সারাদেশ। ঘন কুয়াশা থাকায় দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে যানবাহনগুলো। জীবিকার তাগিদে শীতের তীব্রতাকে উপেক্ষা করে ঘরের বাইরে বের হতে হচ্ছে শ্রমজীবী ও কর্মজীবী মানুষদের।

তবে সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) টানা পাঁচদিন পর রাজধানীতে অবশেষে দেখা মিলল সূর্যের। এর ফলে তীব্র শীতে বিপর্যস্ত জনজীবনে এসেছে স্বস্তি। সকাল থেকেই মেঘের আড়াল থেকে উঁকি দিচ্ছে সূর্য। বেলা বাড়তেই কুয়াশার চাদর ভেদ করে ওঠে রোদ। কেটে গেছে শৈত্যপ্রবাহ। ধীরে ধীরে বাড়ছে তাপমাত্রাও।

এদিকে তাপমাত্রা বাড়লেও ঠান্ডা আবহাওয়া এখনো রয়েছে। আর তাই গরম কাপড় গায়ে দিয়ে, কানটুপি ও মাফলার গলায় দিয়েই জীবিকার তাগিদে বের হয়ে গিয়েছেন কর্মজীবী মানুষেরা।

সোমবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা সীতাকুণ্ডে ১০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত রোববার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা চিল টেকনাফে ২৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস জানান, তাপমাত্রা আরও ১-৩ ডিগ্রি বাড়তে পারে। আগামী ২৫ অথবা ২৬ ডিসেম্বর দেশের বিভিন্ন স্থানে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। এ সময় তাপমাত্রা আবারো কিছুটা কমতে পারে। এছাড়া জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নতুন করে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। সে সময় তাপমাত্রা অনেকটা হ্রাস পেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সোমবার সকালে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। আংশিক মেঘলা থেকে মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক
থাকতে পারে। শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা (১-২) ডিগ্রী সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেতে পারে। পরবর্তী ৭২ ঘণ্টায় হালকা বা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button