সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

স্ত্রীকে খুন করে নাটক সাজাতে পুলিশকে কল

সংবাদ চলমান ডেস্ক: স্ত্রীকে খুন করে নিজে বাঁচার জন্য নাটক সাজাতে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল করেন। পুলিশ এবং স্ত্রীর বড়ভাইকেও ডাকেন।

এর আগে ঘটনাকে ধর্ষণে রূপ দিতে স্ত্রীর সালোয়ার-কামিজ ছিঁড়ে সম্পূর্ণ বিবস্ত্র করেন তিনি।

এত কিছু করেও শেষ রক্ষা হয়নি চট্টগ্রামের বায়োজিদ বোস্তামী থানার বাংলাবাজারের বিবি ফাতেমার খুনি কামরুজ্জামানের।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি প্রিটন সরকারের বিচক্ষণতা ও দক্ষতায় পুলিশের জালে ধরা পরেন তিনি। পরে স্বীকার করেন রোমহর্ষক এ হত্যাকাণ্ডের কথা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাবাজারের গুলশান টাওয়ারের দ্বিতীয় তলা থেকে বিবি ফাতেমা লিপির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই সময় নিহতের স্বামী অভিযোগ করেন তার স্ত্রীকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সন্ধ্যায় কাজ শেষে ঘরে ফিরে মেঝেতে পড়া স্ত্রীর বিবস্ত্র মরদেহ দেখতে পেয়ে ৯৯৯-এ কল করে সাহায্য চান।

বায়েজিদ থানার ওসি প্রিটন সরকার জানান, ইনভেস্টিগেশন করতে গিয়ে আমরা জানতে পারি ঘটনার দিন দুপুরবেলা বাসায় এসেছিলেন কামরুজ্জামান। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে আমরা নিশ্চিত হই তিনিই তার স্ত্রীর হত্যাকারী। নিজেকে বাঁচাতে ৯৯৯-কল করে নাটক সাজিয়েছেন কামরুজ্জামান।

ওসি আরো বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে- মঙ্গলবার দুপুরে বাসায় ফিরে খাবার নিয়ে লিপির সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় কামরুজ্জামানের। ওই সময় রান্নাঘরে রাখা পুতা দিয়ে স্ত্রীর মাথায় আঘাত করেন তিনি। এতে তাৎক্ষণিক স্ত্রীর মৃত্যু হয়। পরে ঘটনাকে ভিন্নখাতে রূপ দিতে স্ত্রীকে বিবস্ত্র করে কাজে চলে যান। সন্ধ্যায় ঘরে ফিরে ৯৯৯-এ কল করে ‘কে বা কারা’ স্ত্রীকে হত্যা করেছে অভিযোগ করে পুলিশের সাহায্য চান।

মেয়েকে যৌতুকের জন্য পরিকল্পিতভাবে নির্যাতন ও হত্যা করেছে কামরুজ্জামান- এমন অভিযোগে বায়োজিদ থানায় মামলা করেছেন নিহত লিপিরর বাবা মো. মাসুদ।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button