সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

রোহিঙ্গা নারীকে জন্মসনদ দেয়ায় চেয়ারম্যান জেলে

সংবাদ চলমান ডেস্ক:  মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় রোহিঙ্গা নারীকে জন্মসনদ দেয়ার অভিযোগে মো. মতিয়ার রহমানকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। তিনি উপজেলার দিঘুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান।

বুধবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মমতাজ বেগম তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর রোহিঙ্গা নারী দিঘুলিয়া ইউপির বেংরোয়া গ্রামের আব্দুল হাইয়ের মেয়ে জান্নাত আক্তার, জন্ম তারিখ ১০ জুন ২০০০ দেখিয়ে একটি নাগরিক সনদ, জন্মসনদ নিয়ে পাসপোর্ট ফরম দাখিল করতে গিয়ে আটক হন।

এ ঘটনায় ওই নারীর ভুয়া স্বামী রেজাউল করিম ও পাসপোর্ট ফরমে স্থানীয় ব্যক্তি হিসেবে সত্যায়নকারী মানিকগঞ্জ জজ কোর্টের আইনজীবী মো. মনোয়ার হোসাইনকে আটক করে পুলিশ।

জন্মসনদ দেয়ার অভিযোগে মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সুপারিনটেনডেন্ট মো. মনিরুজ্জামান ওই রাতেই সদর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এতে ইউপি চেয়ারম্যান মো. মতিয়ার রহমান, ভুয়া স্বামী রেজাউল করিম, আইনজীবী মনোয়ার হোসাইনসহ চারজনকে আসামি করা হয়।

মামলার পর হাইকোর্ট থেকে জামিনে বেরিয়ে আসেন ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার। জামিনের মেয়াদ শেষে বুধবার আদালতে হাজির হলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button