সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

রংপুর রেঞ্জে কৃতিত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ডে পুরস্কার পেল ২৫ জন

রংপুর প্রতিনিধি: কর্মস্পৃহা ও কর্মচাঞ্চল্য বাড়ানোর লক্ষ্যে কৃতিত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ডের জন্য রংপুর রেঞ্জের ২৫ পুলিশ সদস্য পুরস্কৃত হয়েছে। নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ পুলিশ সদস্যদেরকে সম্মাননা স্মারকসহ নগদ অর্থ ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) দুপুরে পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ অডিটোরিয়ামে পুরস্কার বিতরণ করেন রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য।

পুরস্কার বিতরণকালে আলোচনা অনুষ্ঠানে ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য বলেন, কাজ সবাই করে কিন্তু সবাই পুরস্কার পায় না। যারা ভালো করে নজির সৃষ্টি করেছে তাদেরকে মূল্যায়ন করা হয়েছে। আমাদের সবার কাজের লক্ষ্য থাকা উচিত। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখাসহ অপরাধ দমনে সরকার প্রধানের জিরো টলারেন্স নীতির বাস্তবায়ন করা এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

রংপুর বিভাগের আট জেলার সকল স্তরের পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কর্মস্পৃহা ও কর্মচাঞ্চল্য বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রণোদনামূলক এই পুরস্কার সকলকে দায়িত্বশীল হবার পাশাপাশি ভালো কাজে উৎসাহিত করবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানে গত অক্টোবর ও নভেম্বর মাসে কৃতিত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ডের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের হাতে সম্মাননা স্মারক হিসেবে অর্থ পুরস্কার ও ক্রেস্ট তুলে দেন ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন: শ্রেষ্ঠ সার্কেল কর্মকর্তা নীলফামারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল আমিন, দিনাজপুর জেলার বিরামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মিথুন সরকার, শ্রেষ্ঠ সাব-ইন্সপেক্টর গাইবান্ধা সদর থানার এসআই আবু হাসান, নীলফামারী সদর থানার এসআই পলাশ কান্তি রায়, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার নীলফামারীর সৈয়দপুর থানার এসআই ইমাদ উদ্দিন মো. ফারুক ফিরোজ, পঞ্চগড় সদর থানার এসআই শামীম মন্ডল, শ্রেষ্ঠ মাদক ও চোরাচালান মালামাল উদ্ধারকারী কর্মকর্তা দিনাজপুর ডিবি’র এসআই মোকারম হোসেন, লালমনিরহাট সদর থানার এসআই নুর আলম সরকার, শ্রেষ্ঠ এএসআই গাইবান্ধা সদর থানার এএসআই শওকত আলী সিদ্দিকী, দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার এএসআই মাহফুজার রহমান, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইউনিট হিসেবে রংপুর ট্রাফিক ইউনিটের টিআই খান মো. মিজানুর ফাহ্মি, ঠাকুরগাঁও ট্রাফিক ইউনিটের টিআই আবু রায়হান সিদ্দিক, শ্রেষ্ঠ থানা হিসেবে দিনাজপুরের বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুজ্জামান, শ্রেষ্ঠ জেলা হিসেবে ঠাকুরগাঁও জেলার পুলিশ সুপার, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, পঞ্চগড় জেলার পুলিশ সুপার ইউসুফ আলী পুরস্কৃত হন।

এছাড়াও ক্লুলেস খুন মামলার রহস্য উদ্ঘাটনে দিনাজপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মাহফুজ্জামান আশরাফ, কুড়িগ্রাম সদর থানার এসআই নুরুন নবী, রহস্য উদ্ঘাটনে নেতৃত্ব দেয়ায় বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ এটিএম গোলাম রসুল, রংপুর ডিবি’র এসআই শাহ আলম, চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতারে ঠাকুরগাঁও থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) তানভিরুল ইসলাম, চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধারে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য একই জেলা ও থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) গোলাম মর্তুজা, অস্ত্র উদ্ধার ও আসামি গ্রেফতারের জন্য গাইবান্ধা জেলা ডিবি’র এসআই আবু নেওয়াজ সরদার, মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারে গুলিবর্ষণ সাহসিকতাপূর্ণ কাজের জন্য লালমনিরহাট জেলার ডিবি’র কনস্টেবল আব্দুল ওয়াহাব, শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতারে পার্বতীপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানা বিশেষ পুরষ্কারে পুরস্কৃত হন।

এরআগে একই স্থানে মাসিক অপরাধ ও আইন-শৃঙ্খলা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অপরাধ পরিস্থিতি, গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল, আইন-শৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতিসহ আইন-শৃঙ্খলা ও অপরাধ বিষয়ক অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। সভায় রংপুর রেঞ্জের আট জেলার পুলিশ সুপারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button