সংবাদ সারাদেশসারাদেশ

ঋণের টাকা পরিশোধ না করায় আ. লীগ নেতার লাশ দাফনে বাধা

সংবাদ চলমান ডেস্ক : মেয়ের ঋণের টাকা পরিশোধ না করার অভিযোগে নূর মোহম্মদ তালুকদার (৮২) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার লাশ দাফনে বাধা দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দুপুর পর্যন্ত তার লাশ দাফন করতে পারেনি স্বজনরা।

এমন ঘটনা ঘটেছে বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের চেঙ্গুটিয়া গ্রামে।

প্রয়াত নূর মোহম্মদ তালুকদার চেঙ্গুটিয়া গ্রামের বাসিন্দা ও রাজিহার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ছিলেন।

নূর মোহম্মদ তালুকদারের ছেলে বাবুল তালুকদার বলেন, ৭ বছর আগে তার বোন দোলন বিদেশে যায়। এ সময় টাকার প্রয়োজন হলে দোলন উপজেলার নন্দনপট্টি গ্রামের জব্বার বেপারীর ছেলে আলী হোসেন বেপারী, একই গ্রামের শাহীন ঘরামী ও বাঙ্গিলা গ্রামের খোকন বেপারীর কাছ থেকে স্ট্যাম্পে মোট ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা সুদে ধার নেন। বোনের ধার করা টাকা বাবা নূর মোহম্মদ ৫ বছর ধরে পরিশোধ করে আসছেন। এরই মধ্যে ১০ লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়। তারপরও ৩৩ লাখ টাকা দাবি করে বাবাকে আসামি করে মামলা করেন ওই তিন পাওনাদার। ওই মামলায় বাবা নূর মোহম্মদ তালুকদার তার পক্ষে আদালতের রায় পান।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার ভোর রাতে বরিশাল নগরীতে এক আত্মীয়ের বাসায় বাবা মারা যান। শনিবার সকালে তার লাশ দাফনের জন্য নিজ গ্রামে প্রস্তুতি নেওয়া হয়। এ সময় বাবার মৃত্যুর খবর পেয়ে পাওনাদার আলী হোসেন বেপারী ও তার সহযোগী সিরাজ বেপারী তাদের বাড়ি এসে লাশ দাফনে বাধা দেয়। একপর্যায়ে বাবার লাশ দাফন শেষে রাতে অন্য ভাই-বোনদের সঙ্গে নিয়ে বিষয়টি সমাধান করবেন বলে জানান। একই সঙ্গে লাশ দাফনে বাধা না দেওয়ার জন্য পাওনাদারদের অনুরোধ করেন।

উপজেলার রাজিহার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও প্রয়াত নূর মোহম্মদ তালুকদারের ভাতিজা ইলিয়াস তালুকদার জানান, পাওনাদাররা সকাল থেকেই বাড়ি ও বাজারে ঘুরে বেড়াতে থাকেন। কয়েকবার বাড়িতে এসে লাশ দাফনে বাধা দেন তারা। এ ঘটনায় থানা পুলিশ ও স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিদের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হয়। পরে পুলিশ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বাদ আসর মরহুমের রাইসমিলের চাতালে জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়।

আগৈলঝাড়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আফজাল হোসেন জানান, বিষয়টি জেনেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিকালে জানাজা শেষে নূর মোহম্মদ তালুকদারের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। দাফন শেষে মরহুমের উত্তরাধিকার হিসেবে ছেলেদের দেনা-পাওনা পরিশোধ করতে বলা হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
Close
Back to top button