রাজশাহীরাজশাহী সংবাদরাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীতে ডিবি পুলিশের এসআইয়ের বিরুদ্ধে, আটক রেখে অর্থ আদায়ের অভিযোগ

অর্থ নেওয়ার পর মুচলেকায় ছাড়

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজশাহী মহাগরীতে ডিবি পুলিশের এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে ৩ জনকে আটক রেখে অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।   পরে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নগর গোয়েন্দা শাখার এসআইয়ের বিরুদ্ধে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে তাদেরকে নগরীর শাহমখদুম থানধীন ভুগরইল এলাকা থেকে আটক করে । পরে টাকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন। আটকৃতরা হলেন, নগরীর শাহমখদুম থানার ভুগরইল পশ্চিমপাড়া এলাকার আইয়ুবের ছেলে হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ী মানিক, চায়ের দোকানি রফিক এবং ওই এলাকার রায়হান।

ভুক্তভোগি, রাজ্জাকের ছেলে রায়হানের পরিবার  অভিযোগ করে জানান , গত ২৮ সেপ্টেমবর দিবাগত রাতে রাজশাহী মহানগরীর গোয়ন্দা পুলিশের (ডিবি) এসআই হাসান কথিত সোর্স সুমন ও ফুলতলা এলাকার জিয়ার মাধ্যমে তিনজনকে বিএনপি কর্মী বলে আটক করে। আটক করার কারণ জানতে চাইলে সোর্সরা বলে তারা বিএনপির কর্মী। এ জন্য তাদের আটক করা হয়েছে। সমাবেশে যাওয়ার জন্য মিটিং করছে। আটকের পর তাদের সোর্সরা জানায় টাকা দিলে ছেড়ে দেওয়া হবে। টাকা না দিলে মামলায় চালান করে দেওয়া হবে।

মামলা থেকে বাঁচতে হার্ডওয়্যার (ব্যবসায়ী) মানিকের কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা, চায়ের দোকানদার রফিকের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা এবং রায়হানের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা নেওয়া হয় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। টাকা নেওয়ার পর মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। ভুক্তভোগীরা আরো জানায়, বিষয়টি কাউকে না জানাতে ভয়ভীতি দেখায়। ভয়ে তারা বিষয়টি কাউকে জানায়নি।

স্থানীয়  অনেকেই  অভিযোগ তুলে জানায়,  পুলিশের কথিত সোর্স- দালাল জিয়া ও সুমন ওই এলাকার নিরীহ মানুষকে মাদকসহ বিভিন্নভাবে মামলার ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায় করে।  টাকা না দিলে কথিত সোর্সদের দ্বারা হয়রানির স্বিকার হয়েছে  অনেকেই । তাদেরকে সবাই  এলাকায় পুলিশের দালাল হিসেবে চেনার কারণে কেউ বিপদে পড়লে তাদের কাছেই আসে। আর সেই সুযোগে তারা বিভিন্নভাবে হয়রানি করে। দুই কথিত সোর্সের কারণে এলাকার সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।  তাদেরকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান স্থানীয়রা।

জানতে চাইলে,  নগর গোয়েন্দা শাখার পরিদর্শকের সরকারী নম্বরে একাধিকবার ফোন করেও রিসিভ করেননি। এব্যপারে নগর গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার একরামুল হক বলেন, আমি বাইরে ছিলাম। আজই যোগদান করেছি। এ বিষয়ে কিছুই জানিনা।  বিষয়টি খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হবে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button