রাজশাহীরাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীতে চলন্ত বাসে যুবতীকে ধর্ষণের চেষ্টা, সুপারভাইজার আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক :

চলন্ত বাসে অস্টাদশী এক যুবতীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাসের সুপার ভাইজারকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন রাবি শিক্ষার্থী।মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে রাজশাহী নগরীর মতিহার থানার বিনোদপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত ফজলুর রহমানকে (৩৭)  রাজশাহী-বরিশাল রুটে চলাচলকারী ‘আকিব’ পরিবহণের সুপারভাইজার।তার বিরুদ্ধে নগরীর মতিহার থানায় মামলা হয়েছে। ফজলুর রহমানের বাড়ি নাটোর জেলার রহিমকুড়ি গ্রামে।

ভুক্তভোগি জানান, তার বাড়ি লক্ষীপুর জেলায়। অল্প বয়সেই তিনি মা-বাবাকে হারিয়েছেন। নানার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করেন তিনি। রাজশাহী নগরীর শিরোইল এলাকায় বান্ধবীর টুম্পার বাড়িতে বেড়াতে আসার উদ্দেশ্যে মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে লক্ষীপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে রাজশাহীগামী যাত্রীবাহী ‘আকিব’ বাসে উঠেন তিনি।

নাটোর পার হওয়ার পর বাসটি প্রায় যাত্রীশূন্য হয়ে পড়ে। এ সময় বাসের সুপারভাইজার পাশের সিটে বসে তাকে কু-প্রস্তাব দেন এবং জোর করে তার শরীরে হাত দেন। এ সময় তিনি চিৎকার দিলে তাকে ভয়ভীতি দেখানো হয়।

রাত দেড়টার দিকে বাসটি বিনোদপুর বাজারে এলে আশপাশে লোকজন দেখে যুবতী আবারো চিৎকার দিতে শুরু করে। বিনোদপুর বাজারে দাঁড়িয়ে থাকা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী বাসটির গতিরোধ করে। এসময় যুবতীর মুখে সব শুনে তারা সুপারভাইজার ফজলুর রহমানকে গনপিটুনি দিতে শুরু করে।

খবর পেয়ে মতিহার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই যুবতীকে উদ্ধার করে। এসময় পুলিশ বাসের সুপারভাইজার ফজলুর রহমানকে আটক করে।বাসটিকে জব্দ করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

মতিহার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) অলিউর রহমান জানান, আকিব বাসের সুপারভাইজারকে মারধর করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে আমি ফোর্স নিয়ে বিনোদপুর বাজারে উপস্থিত হয়ে উত্তেজিত জনতার কবল থেকে সুপরভাইজারকে উদ্ধার করে আটক করি।

ভুক্তভোগী যুবতীকে মহিলা পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। আকিব বাসটিও জব্দ করে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button