পবারাজশাহী

বাল্যবিয়ে ও মাদক প্রতিরোধে সোচ্চার থাকার শপথ শিক্ষার্থীরা

পবা প্রতিনিধি: রাজশাহীর পবা উপজেলার দারুশা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে আশপাশের চারটি স্কুলের দুই হাজারের বেশী শিক্ষার্থী বাল্যবিয়ে ও মাদক প্রতিরোধে নিজেদের সোচ্চার হওয়ার অঙ্গিকার করেছে। রাজশাহী মহানগর পুলিশের কর্ণহার থানা পুলিশ এ সমাবেশের আয়োজন করে।

সোমবার দুপুরে অনুষ্ঠিত মাদক, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নারী নির্যাতন বিরোধী বাল্যবিয়ে নিরোধ শীর্ষক সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন, আরএমপির কাশিয়াডাঙ্গা জোনের উপ-কমিশনার হাতেম আলী। সমাবেশ থেকে সমাজে মাদক, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নারী নির্যাতন ও বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের সচেতন করা হয়।

আরএমপির কর্ণহার থানার ওসি আনোয়ার আলী তুহিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যদের মধ্যে কাশিয়াডাঙ্গা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার হাফিজুল ইসলাম, স্থানীয় হুজুরীপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা, দারুশা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা রাবেয়া বসরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। তারা সমাজে মাদক, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নারী নির্যাতন ও বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক, অভিভাবক ও সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

আরএমপির কর্ণহার থানার ওসি আনোয়ার আলী তুহিন জানান, কর্ণহার থানা এলাকা গ্রামাঞ্চল। এখানকার মানুষ এখনো অনেক পিছিয়ে রয়েছে। সচেতনতার অভাবে বাল্য বিয়ের প্রবনতা তুলনামুলক বেশী। এছাড়া মাদকের কারবারও চলে। তবে এসব অনেকটায় এখন নিয়ন্ত্রণে। তারপরেও অভিভাবকরা স্থান ত্যাগ অন্য অন্যস্থানে ছেলেমেয়েদের নিয়ে গিয়ে অসাধু কাজীর প্ররোচনায় বিয়ে দিয়ে দেন। তিনি বলেন, বিভিন্ন স্কুল কলেজে গিয়ে তারা সচেতন করেন।

এরই অংশ হিসেবে অনুষ্ঠিত সমাবেশ থেকে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক, অভিভাবক ও সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ ও শিক্ষার্থীদের সচেতন করতেই এই সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শেষে দুই হাজারের বেশী শিক্ষার্থী দাড়িয়ে বাল্যবিয়ে ও মাদক প্রতিরোধে নিজেদের সোচ্চার হওয়ার অঙ্গিকার করে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button