দূর্গাপুররাজশাহীরাজশাহী সংবাদ

দুর্গাপুরে সরকারিভাবে ধান ক্রয়ে লটারির মাধ্যমে চাষী নির্বাচন

দুর্গাপুর প্রতিনিধি : রাজশাহী দুর্গাপুর উপজেলায় আমন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যে উপজেলার প্রান্তিক চাষিদের মাঝ থেকে লটারির মাধ্যমে সরকারিভাবে ধান ক্রয়ের জন্য চাষি নির্বাচন শুরু করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার উদ্ভোধনের প্রথমদিনে উপজেলার ৪নং দেলুয়াবাড়ি ও ৭নং জয়নগর ইউনিয়নের প্রান্তিক চাষিদের লটারির মাধ্যমে ১শত ৪৫জন চাষি নির্বাচন করা হয়। এবার উপজেলার প্রায় ৭হাজার আমন চাষির চাষির মধ্যে ৫শত ৬৮ জন চাষিকে লটারির মাধ্যমে নির্বাচন করা হবে। মঙ্গলবার দুপুরে দেলুয়াবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহসীন মৃধার উপস্থিতিতে লটারীর মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন করেন। একইভাবে জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হয়ে লটারির মাধ্যমে ৬০জন প্রান্তিক চাষি নির্বাচন করেন।

জানা গেছে, দুর্গাপুর উপজেলা খাদ্যগুদামে এবার ২৬ টাকা কেজি দরে ৫শত ৬৮ মেট্রিকটন ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। উপজেলার একটি পৌরসভা ও ৭টি ইউনিয়নে কৃষি কার্ডধারী ৭ হাজার আমন চাষ কৃষক রয়েছে। এই সংখ্যক কৃষকের নিকট থেকে সরাসরি ধান ক্রয় সম্ভব না হওয়ায় লটারির মাধ্যমে ৫শত ৬৮ জন প্রান্তিক কৃষক নির্বাচন করা হবে। নির্বাচিত কৃষকগণ এক টন হারে ধান সরকারি গুদামে বিক্রি করতে পারবেন।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলায় ৫ হাজার ৩শ ২০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের আবাদ করা হয়েছে। ৪ হাজার ৬৬৪ মেট্রিকটন ধানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। উপজেলায় কৃষক রয়েছেন প্রায় ৭ হাজার জন। লটারীর মাধ্যমে চাষি নির্বাচন উপলক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহসীন মৃধা কৃষক উদ্বুদ্ধকরণে ব্যাপক আকারে প্রান্তিক চাষিদের মাঝে প্রচার প্রচারণ করেন। এমনকি মাঠপর্যায় গিয়ে কৃষকদের মাঝ থেকে সরকারি ভাবে ধান ক্রয় ব্যাপারে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মসিউর রহমান,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বেলাল হোনাইন,উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা শেখ মো মোফাজ্জল হোসেন, খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আফরোজা বেগম, দেলুয়াবাড়ি ইউুনয়নের চেয়ারম্যান রিয়াজুল ইসলাম, জয়নগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সমসের আলী ইউনিয়ন কৃষি কর্মকর্তা জাহিদ হাসান, ও কৃষকবৃন্দ।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button