রাজশাহীরাজশাহী সংবাদ

এমপি বাদশাকে প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ-সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক জননেতা ফজলে হোসেন বাদশাকে প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজশাহীবাসীর ব্যানারে সোমবার সকালে নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এই কর্মসূচি পালিত হয়।

সমাবেশের আগে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এতে রাজশাহীর সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশাকে হুমকিদাতার বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে তারা নানা শ্লোগান দেন। নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জিরোপয়েন্টে গিয়েই বিক্ষোভ মিছিল শেষ হয়। পরে সেখানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার নগরীর পবা নতুনপাড়া এলাকার গাঙপাড়া খালের দুই পাশের বাড়ি-ঘর স্থপনা উচ্ছেদ শুরু করে রজাশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু পুনর্বাসন না করে এই শীতের মধ্যে বাসিন্দাদের উচ্ছেদ করার প্রতিবাদ জানান ফজলে হোসেন বাদশা। তিনি গাঙপাড়া এলাকায় অবস্থান নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন। আর মানবিক কারণে তাদের কিছু দিন সময় দেয়ার জন্য সুপারিশ করেন। তখন সাম্যবাদী দলের বহিষ্কৃত নেতা মাসুদ রানা তাকে ফোন করে হুমকি দেন। প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে বলেন, গাঙপাড়া থেকে সরে না গেলে তার বিপদ আছে। এ নিয়ে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় অভিযোগ হয়েছে।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফজলে হোসেন বাদশা তার ৫০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে সব সময় গরীব-মেহনতি মানুষের জন্য কাজ করেছেন। বিপদে-আপদে পাশে দাঁড়িয়েছেন। আর তাই তাকে বার বার হুমকি দেয়া হয়েছে। রাজশাহীতে যখন সিদ্দিকুল ইসলাম বাংলা ভাই জেএমবি প্রতিষ্ঠা করে হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছিল তখন ফজলে হোসেন বাদশাই তার বিরুদ্ধে সরব ছিলেন। বাংলা ভাইও তাকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল। কিন্তু বাদশাকে বিচলিত করতে পারেনি। কোনো হুমকিই তাকে দমাতে পারবে না। কারণ, রাজশাহীর মানুষ তার সঙ্গে আছে।

সমাবেশ থেকে হুমকিদাতাকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়। একইসঙ্গে পুনর্বাসনের আগে উচ্ছেদ অভিযান না চালানোরও আহ্বান জানান। বক্তারা বলেন, ফজলে হোসেন বাদশা কখনোই উচ্ছেদের বিপক্ষে নয়। কিন্তু তিনি বারবারই বলেছেন এ সকল লোকদের পুর্নবাসনের সঠিক ব্যবস্থা করতে হবে। তারপরে উচ্ছেদ করতে হবে। কিন্তু পুনর্বাসনের ব্যবস্থা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়নি। তারা বলেন, পুনর্বাসনের ব্যবস্তা যেমন করা হয়নি তেমনি হুমকিদাতাকেও এখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি। তাকে গ্রেপ্তার করা না হলে রাজশাহীবাসী আরও কঠিন কর্মসূচি দেবে বলেও এই সমাবেশ থেকে ঘোষণা দেয়া হয়।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কৃষকনেতা রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সহ-সভাপতি এন্তাজুল হক বাবু, নারীনেত্রী তসলিমা খাতুন, রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ চেতনা বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, মহানগর ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রমানিক দেবু, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক তোতাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button