রাজশাহীরাজশাহী সংবাদ

এক রাতে সাত সরকারি অফিসে চুরি

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় একই রাতে সরকারি সাত অফিসে চুরির ঘটনা ঘটেছে। টাকা চুরির পাশাপাশি মূল্যবান কাগজপত্র তছনছ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার আনসার ভিডিপি ব্যাংক, মৎস্য অফিস ও ভূমি অফিসসহ মোট সাতটি চুরির ঘটনা ঘটে। তবে রাতে নাইটগার্ড থাকার পরও কেন চুরির ঘটনা ঘটেছে, বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। ঘটনার পর থেকে প্রশাসন এলাকায় ব্যাপক নজরদারি ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ১৪ জানুয়ারি  দিবাগত রাতে উপজেলার আনসার ও ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক, উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিস, উপজেলা ভূমি অফিস, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিস, উপজেলা মৎস্য অফিস, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিস ও উপজেলা শিক্ষা অফিসে মুখোশধারী চোরের দল অফিসগুলোর দরজার তালা ভেঙে ও পিছনের জানালার গ্রিল এবং লোহার হ্যাজবোল্ড, ক্যাচিগেট কেটে ভেতরে প্রবেশ করে।

সিসিটিভি’র ফুটেজমতে ১৫ জানুয়ারি রাত ৩টার দিকে চোরের দল অফিস পাড়ার বিভিন্ন অফিসগুলোতে প্রবেশ করতে দেখা যায়। এতে উপজেলা মৎস্য অফিসারের কক্ষ থেকে ৩৫ হাজার টাকা ও ভূমি অফিসের আলমিরা ভেঙে সাড়ে ১০ হাজার টাকা ও বিভিন্ন অফিসের মূল্যবান কাগজপত্র চুরির খবর পাওয়া গেছে।

ইউএনও গনপতি রায় ও থানা পুলিশ চুরি যাওয়া অফিসগুলো পরিদর্শন করেছেন। ইউএনও বলেন, ‘পাতালে থাকলেও যে কোন মূল্যে চোরের দলকে আটক করা হবে।

এ সময় সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও অফিস প্রধানদের দায়িত্বরত নৈশপ্রহরীদের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ও তাৎক্ষণিক সাসপেন্ডের নির্দেশ দেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, উপজেলা সদরে বিভিন্ন সরকারি অফিসে বছরের পর বছর নৈশ প্রহরীরা একাধারে চাকরি করায় তাদের স্বেচ্ছাচারিতা ও স্বজনপ্রীতি বেড়ে গেছে, যে কারণে তারা সরকারি সম্পদ রক্ষার বিষয়ে উদাসীন। অতীতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও তথ্য আপা’র অফিস থেকে কম্পিউটার এবং একটি বাড়ি একটি খামারে অবস্থিত পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক থেকে টাকা চুরির ঘটনা ঘটেছে।

এতগুলো সরকারি অফিসে বেতনভুক্ত নিরাপত্তা প্রহরী থাকা সত্বেও এমন চুরির ঘটনায় সুধী মহল উদ্বিগ্ন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button