নাটোররাজশাহী সংবাদ

নাটোরের হালসা গ্রাম থেকে আরএসটি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের হালসা গ্রাম থেকে আরএসটি (রাজশাহী সাইন্স এন্ড টেকনোলজি) বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ’র ছাত্র কামরুল ইসলাম মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার হালসা গ্রামের জনৈক নুরুর বাঁশ ঝাড়ের মধ্যে থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। তার শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত সহ তার বাম চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে। সে শনিবার রাত ৯ টা থেকে নিখোঁজ ছিল। আফাজ উদ্দিন হালসা গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। পুলিশ লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

নিহত কামরুলের মামা আলমগীর হোসেন বলেন, রোববার রাত ৯ টার দিকে ফোন করে তার ভাগিনা কামরুলকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয়া হয়। এর পর থেকে সে বাড়ি ফিরে আসেনি। খোজা খুজি করে না পেয়ে আজ রোববার দুপুরে নাটোর সদর থানায় একটি জিডি করা হয়। সন্ধ্যার দিকে বাড়ি থেকে প্রায় হাফ কিলোমিটার দুরে জনৈক নুরুর বাঁশ ঝাড়ের মধ্যে এলাকায় কয়েকজন কিশোর বয়সী ছেলে কামরুলের মরদেহ পরে থাকতে দেখে স্থানীয়দের জানালে তারা কামরুলের পরিবারকে জানায়। পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে কামরুলের মৃতদেহ সনাক্ত করে এবং পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ রাত ৯টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আজ রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় পড়–য়া ছাত্র কামরুলের নিখোঁজের বিষয়টি সম্পর্কে থানায় জিডি করেছেন তার পরিবার। ওই জিডি করার পর থেকে পুলিশ কামরুলের সন্ধানে মাঠে নামে। রাত ৮ টার দিকে মরদেহ একটি বাঁশ ঝাড়ের মধ্যে পড়ে রয়েছে বলে পুলিশকে জানানো হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে এবং ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত সহ একটি চোখ ওঠানো রয়েছে। হত্যার কারন ও হত্যাকারীদের সনাক্তে পুলিশ অনুসন্ধান শুরু করেছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button