নাটোর

চিকিৎসার নামে গৃহবধূকে অচেতন করে কবিরাজের ধর্ষণ

নাটোর প্রতিনিধিঃ

নাটোরের সিংড়ায় চিকিৎসার করার কথা বলে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে নুরুজ্জামান নামে এক কবিরাজকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে পৌর শহরের সরকারপাড়া মহল্লা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক কবিরাজ সরকারপাড়ার শাজাহান আলীর ছেলে।

সিংড়া থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর প্রায় ৯ বছর আগে সিংড়া পৌর শহরের পেট্রোবাংলা মহল্লায় বিয়ে হয়। বিয়ের দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও তার সন্তান না হওয়ায় স্থানীয়দের পরামর্শে গ্রাম্য কবিরাজ নুরুজ্জামানের কাছে চিকিৎসা নিতে যান ওই গৃহবধূ।

এই সুযোগে কবিরাজী চিকিৎসার কথা বলে গত ৫ জানুয়ারি গৃহবধূকে ওষুধ দিয়ে অচেতন করে ধর্ষণ করে কবিরাজ নুরুজ্জামান।

পরে কবিরাজ নুরুজ্জামানকে আটকে রাখা হলে মাত্র ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে বিষয়টি রাতারাতি ধামাচাপা দেয় স্থানীয় কয়েকজন যুবক। আর ছেড়ে দেয়া হয় কবিরাজকে। পরে ওই ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ সিংড়া থানায় মামলা করে।

সিংড়া থানার ওসি নূর-এ-আলম সিদ্দিকী বলেন, এ বিষয়ে ধর্ষিতার পক্ষ থেকে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার কবিরাজ নুরুজ্জামানকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button