ঢাকা

সাভারে ফ্লোর ভাড়ার টাকা চাওয়ায় স্বামী-স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টা

মোঃ নাসিম খান, সাভার প্রতিনিধিঃ

সাভারের আশুলিয়ায় ভবনের ফ্লোর ভাড়ার টাকা চাওয়ায় এক বিদেশী নাগরিক ও তার স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে একটি তৈরি পোশাক কারখানার মালিকের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টা ও চাঁদাবাজির দুটি মামলা দায়ের
করা হয়েছে।

আশুলিয়া থানায় মামলা দুটি দায়ের করা হয়। মামলার বিবরণী থেকে জানাযায়,গত ছয় মাস আগে আশুলিয়া ইউনিয়নের আউকপাড়া এলাকায় ফিলিস্তিনি নাগরিক সামির এল এম হাদীদ ও তার স্ত্রী তাসলিমা আহমেদ এর কাছ থেকে চুক্তিনামা করে তিন বছর পর নবায়নের শর্তে একটি বহুতল ভবনের পঞ্চম ও ৬ষ্ঠ তলা ফ্লোর ভাড়া নিয়ে দেড় শতাধিক এরও বেশী শ্রমিক নিয়ে বাংলা ফ্যাশন গার্মেন্টস লিশিটেড চালু করেন সোহরাব হোসেন নামের এক ব্যক্তি।

পরে ওই পোশাক কারখানার মালিক ভবনটির তিনতলার একটি ফ্লোর কিছু দিনের জন্য ব্যবহারের জন্য নেন। পরে
তিনি তিনতলা ফ্লোরটি আর ছাড়েননি। এর পর গেল এপ্রিল মাসের প্রথম রোজায় ফ্লোর ভাড়ার টাকা চাইলে বাংলা ফ্যাশন লিমিটেডের মালিক সোহরাব হোসেন সন্ত্রাসীদের নিয়ে ভবন মালিক ফিলিস্তিনি নাগরিক সামির এল এম হাদীদ ও তার স্ত্রী তাসলিমা আহমেদকে কারখানার ভিতরে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করে ভবনটি ভাঙচুর করে নগদ অর্থসহ মালামাল লুটপাট করে। আহত অবস্থায় তারা আবারও ফ্লোর ভাড়ার টাকা চাইলে কারখানাটির মালিক ওই দম্পতির কাছে বিশ লক্ষ টাকা উল্টো চাঁদা দাবি করেন। বর্তমানে কারখানাটি তালা বন্ধ অবস্থায় বন্ধ রয়েছে।

সন্ত্রাসীদের ভয়ে ওই ভবনে যেতে পারছে ভবন মালিক। পরে ওই দিনেই খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে ভবনের ভাড়ার টাকা না পেয়ে ওই দম্পতি মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

পরে এঘটনায় ০৫/০৪/২২ ফিলিস্তিনি নাগরিক সামির এল এম হাদীদ বাংলা ফ্যাশন লিমিটেড এর মালিক সোহরাব হোসেনকে প্রধান আসামী করে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও বেশ কয়েকজনকে আসামী করে হত্যা চেষ্টা ও চাঁদা বাজির অভিযোগে আশুলিয়া থানায় দুটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১২।

এই বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রশাসনে প্রতি আহবান জানিয়েছেন ওই দম্পতি। এবিষয়ে আশুলিয়া থানার এস আই জামাল শিকদার বলেন,মামলার আসামীরা বর্তমানে জামিনে রয়েছেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button