ঠাকুরগাঁসংবাদ সারাদেশ

পীরগঞ্জে মিষ্টি সুবাস ও হলুদ রঙে ভরে গেছে সরিষার খেত

লিমন সরকার ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

বর্তমান সময়ে সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। অনুকূল আবহাওয়া হওয়ায় বেড়ে ওঠা গাছ আর ফুল দেখে অধিক ফলনের স্বপ্ন দেখছেন ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের সরিষা চাষি কৃষকেরা।

এ বছরে ঠাকুরগাঁওয়ের রেকর্ড পরিমাণ জমিতে উন্নত জাতের সরিষা চাষ করা হয়েছে। গ্রাম বাংলার প্রকৃতি এখন হলুদ চাদরে ঢাকা। অল্প সময়ে স্বল্প খরচে এ ফসল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কৃষকের মাঝে। মিষ্টি সুবাসে আর হলুদ রঙে ভরে গেছে সরিষার চাষকৃত মাটি গুলো। উপজেলার ভাবনাগঞ্জ ইউনিয়নের বাজারদেহা গ্রামের সরিষা চাষি উম্মের আলী বলেন, গত বছর ১০ কাঠা মাটিতে সরিষার চাষ করে লাভবান হওয়ায় এ বছর দেড় বিঘায় সরিষা চাষ করেছেন। সরিষার ফুল শেষে ভালো আর বড় বড় বীজ দেখা যাচ্ছে।

আশা করছি এবারও লাভবান হব ন্যায্যমূল্য পেলে । ১ নং ভোমারাদহ ইউনিয়নের সেনুয়া গ্রামের সরিষা চাষি চয়তু মোহাম্মদ বলেন, জমি বর্গা নিয়ে এবার ১ বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছি। আল্লাহর রহমতে এখন পর্যন্ত আমার সরিষা খেতে কোনো সমস্যা দেখা দেয়নি । সুতরাং সুন্দর আর ভালোমানের বীজের দেখা পাওয়া যাচ্ছে। এতে ভালো ফলন পেয়ে লাভবান হতে পারব। জেলা কৃষি অফিস থেকে জানায়, চলতি বছর ১২ হাজার ৬৩০ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদ হয়েছে। এই মৌসুমে অনুকূল আবহাওয়ায় এ জেলাতে সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলে সরিষা চাষিরা অধিক মুনাফা লাভ করবেন বলে আশা করছেন জেলা কৃষি বিভাগ।

তবে শীত ও ঘন কুয়াশার কারনে বেশ কিছুটা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে সরিষার। কৃষকদের যথার্থ পরামর্শ ও পরিচর্যার বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর উপ-পরিচালক আফতাব হোসেন। এসব ঝাঁপিয়ে জেলায় সরিষা চাষিরা লাভের দিন গুনছেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button