জাতীয়

‘ভোলার ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে ব্যবস্থা’

ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে পুলিশ-জনতার মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায়

সংবাদ চলমান ডেস্ক:

ভোলায় ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে পুলিশ-জনতার মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে তার বিচার হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।

সোমবার সচিবালয়ে এক সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ওইদিন পুলিশ আত্মরক্ষার জন্য গুলি চালায়। এরপরই ঘটে একটা দুঃখজনক ঘটনা। চারজন নিহত হয়েছেন। কয়েকজন আহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশেরও একজন আহত হয়েছেন। আমরা সবাই এটার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। এই ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, ওই এলাকার এমপি তাৎক্ষণিক ওখানে গিয়েছেন, তাদেরকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা করেছেন। এমপি আরো ব্যবস্থা নিচ্ছেন, যাতে করে আর্থিক সহযোগিতা তারা পায়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি ঘটনা ঘটার সঙ্গে-সঙ্গে এসপি এবং ওসির সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছিলেন, এই ঘটনার পরে (ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য) একটি সমাবেশ ডেকেছিল। সেই সমাবেশ করে আয়োজকরা চলে গিয়েছেন।

তিনি বলেন, কিন্তু সমাবেশের কিছু অংশ দুই থেকে তিনশ জনতা ইউএনও এবং ওসিসহ পুলিশ অফিসাররা যে রুমে ছিলেন সে জায়গাটিতে এসে মারমুখী আচরণ শুরু করে। তারা দরজা ভাঙার চেষ্টা করেন এবং ইটপাটকেল ছুড়ে তখন ইউএনও গুলিবর্ষণের কথা বলছেন। এটা আমার শোনা কথা। তদন্তের মধ্যেই চলে আসবে কে গুলি করার অনুমতি দিয়েছেন, কিভাবে গুলি হয়েছে। মূল তদন্তের পর এগুলো বের হয়ে আসবে।

এই ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ছেলেটিকেও আটক করা হয়েছে। এটা তদন্তের জন্য আমরা সিঙ্গাপুর ভিত্তিক যে ফেসবুকের অফিস আছে সেখানে আবেদন করেছি। আশা করছি এক অথবা দুই দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। কে এই লেখা লিখেছে অথবা কার মোবাইল থেকে ঘটনাটি ঘটিয়েছে তার সব তথ্য চলে আসবে।

তিনি আরো বলেন, সম্পূর্ণ তথ্য না আসা পর্যন্ত সবারই একটু অপেক্ষা করা উচিত।  শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য আমরা সবাইকে আবেদন করছি। যে ঘটনাটি ঘটেছে অবশ্যই আইন অনুযায়ী তার বিচার হবে। কেউ যেন এই মুহূর্তে আইন হাতে তুলে না নেয়।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো পড়ুন
Close
Back to top button