চাপাইনবাবগঞ্জরাজশাহী সংবাদ

আমের রাজধানীর বরই যাচ্ছে সারাদেশে

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :  আমের রাজধানীতে উৎপাদন হচ্ছে বরই। আর সেই বরই যাচ্ছে সারা দেশে। আমের রাজধানীতে বিশেষ করে বলসুন্দরী, থাই, বেবীসুন্দরী, সুন্দরী, কাশ্মেরী খাচ্চড়, নারিকেলি ও বলসুন্দরী বরই বেশি উৎপাদন হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ আমের রাজধানী নামে খ্যাত হলেও এখানে আমের মতোই সুমিষ্ট বিভিন্ন জাতের বরই উৎপাদন হচ্ছে। বিশেষ করে শীত মৌসুমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বিভিন্ন জাতের বরই দেখা মেলে।

কৃষকরা জানিয়েছে, বরই চাষে যেমন খরচ বেশি হয়, তেমনই আয়ও ভালো হয়। সে কারণে অনেকেই বরই চাষে ঝুঁকছে।
দাদন চক এলাকার একরামুল হক জানান, তিনি ভারত হতে কাশ্মেরী বরই বীজ সংগ্রহ করে চলতি মৌসুমে তিন বিঘা জমিতে চাষ করেছেন। এতে মোট খরচ হয়েছে প্রায় ৫৫ থেকে ৬০ হাজার টাকা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় তার লাগানো গাছে বাম্পার বরই ধরেছে। তিনি নিজেই কক্সবাজার ও চট্টগ্রামে বরই চালান করছেন।

বিশেষ করে শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা, বিনোদপুর, দাইপুখুরিয়া ও দুর্লভপুর এলাকায় এবার বরই ব্যাপক হারে চাষ হয়েছে। জেলায় নির্দিষ্ট কোনো বরই বাজার বা হাট নাই। তার পরেও দাইপুখুরিয়া ইউনিয়নের মির্জাপুর বাজারে বসছে এখন নিয়মিত বরই হাট। সেখানে কৃষকরা মাঠ হতে বরই সংগ্রহ করে বিক্রি করছেন। প্রতি ক্যারেট ৬৫০ থেকে ৭৫০ টাকা দরে। সংশ্লিষ্টদের তথ্য মতে, সেখানে দিনে প্রায় কোটি টাকার বরই বেচা কেনা হচ্ছে।

এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মঞ্জুরুল হোদা বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় টক মিষ্টিসহ বিভিন্ন জাতের বরই চাষ হচ্ছে। যা দেশের বিভিন্নস্থানে সরবরাহ হচ্ছে। জেলায় প্রায় ৬শ হেক্টর জমিতে ১০ জাতের বরই চাষ হচ্ছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button