আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাস: মৃতের সংখ্যা ৯০০ ছাড়াল

সংবাদ চলমান ডেস্কপ্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। রোববার এ ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে আরো ৯১ জনের। বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট ৯০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চীনের মূল ভূখণ্ড ও বাইরে মৃত্যু হয়েছে ৯০২ জনের। এছাড়া হংকং ও ফিলিপাইনে একজন করে মারা গেছেন।

সোমবার দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন এ তথ্য জানিয়েছে। খবর সাউথ চায়না মর্নি পোস্ট।

প্রতিদিনই করোনায় মৃতের সংখ্যা ও আক্রান্ত বাড়ছে সঙ্গে আতঙ্ক, ভয় ও শঙ্কা। শুধুমাত্র গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৯৭ জন, যা একদিনে সবচেয়ে বেশি মারা যাওয়ার রেকর্ড। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে ৯১০ জন মারা গেছেন। যা ২০০২-২০০৩ সালে সার্স ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার রেকর্ড ছাড়িয়েছে।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানায়, চীনে গত এক দিনেই আক্রান্ত হয়েছে তিন হাজার ৬২ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৪০ হাজার ১৭১ জন। এর মধ্যে ৬ হাজার ৫০০ জনের অবস্থা ভয়াবহ বলে জানানো হয়েছে।

হুবেইতে নতুন করে দুই হাজার ৬১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে প্রদেশটিতে ৮৭১ জনের মৃত্যু হয়েছেন, আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৭১৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৯৭ জনের মধ্যে শুধু হুবেইতে ৯১ জন, বাকি ৬ জন মারা গেছেন চীনের অন্যান্য এলাকায়। হুবেইতে এ পর্যন্ত এক হাজার ৮০০ জন সুস্থ হয়েছেন।

হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান, যেখানাকার একটি সামুদ্রিক খাদ্য ও মাংসের বাজার থেকে এই করোনা ভাইরাসটির উৎপত্তি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভাইরাসটি যাতে ছড়িয়ে না যায়, সেজন্য চীন হুবেই প্রদেশকে পুরো দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। ওই অঞ্চলের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে চীনসহ বাইরের বিশ্ব থেকে।

চীনের সবগুলো প্রদেশসহ বিশ্বের ২৫টি দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। চীনের বাইরে এ পর্যন্ত ২৭০ জন আক্রান্ত শনাক্ত করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।

চীন, থাইল্যান্ড, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ভিয়েতনাম, হংকং, সিঙ্গাপুর, ভারত, মালয়েশিয়া, নেপাল, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জার্মানি, কম্বোডিয়া, শ্রীলঙ্কা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, তাইওয়ান ও ইসরায়েলস ২৫টি দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। প্রতিদিনই নতুন নতুন রোগীকে শনাক্ত করা হচ্ছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button