রাজশাহী সংবাদ

‘লুটপাটের কারণে বিদ্যুৎ-পানির দাম বাড়ছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ:
সরকারের দুর্নীতি আর লুটপাটের জন্য বারবার বিদ্যুৎ-গ্যাস ও পানির দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর খেসারত দিতে হচ্ছে সাধারণ জনগণকে। বিদ্যুৎ ও ওয়াসার পানির মূল্য বৃদ্ধি সহ সরকারের গণবিরোধী কাজের বিরুদ্ধে জনগণকে সাথে নিয়ে রুখে দাঁড়াতে হবে। গণআন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে হটিয়ে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে।
বিদ্যুৎ ও পানির মূল্য বৃদ্ধি এবং বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সোমবার দুপুরে নওগাঁ জেলা বিএনপির আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। শহরের কেডির মোড়ে জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
জেলা বিএনপির যুগ্ন-আহ্বায়ক নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কর্নেল (অব.) আব্দুল লতিফ খান, জেলা বিএনপির যুগ্ন-আহ্বায়ক রফিকুল আলম, জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মামুনুর রশিদ, মহাদেবপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি রবিউল আলম, জেলা যুবদলের সভাপতি বায়েজিদ হোসেন প্রমুখ।
আব্দুল লতিফ খান বলেন, ‘এ সরকারের অধীনে কোনো কিছু নিয়ন্ত্রণে নেই। গণতন্ত্র হত্যা করে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে বন্দী করে রেখেছে। মানুষের বাক স্বাধীনতাকে হরণ করে একের পর এক নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধি করে যাচ্ছে। কিছু দিন আগে গ্যাসের দাম বাড়িয়ে এবার বিদ্যুৎ ও পানির দামও বাড়িয়েছে। এতে গরীব ও মধ্যবিত্ত পরিবারে দুর্ভোগ নেমে আসবে।’
বর্তমান সরকারকে গণবিরোধী আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারের নেতাকর্মীরা লুটপাট তরে তাঁদের বাড়িকে ব্যাংকে পরিণত হয়েছে। লুটপাট ও দুর্নীতির কারণে সব কিছু সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। এই সরকার গণবিরোধী। এই সরকারের পতন অনিবার্য। আন্দোলন শুরু হলে পালানোর পথ পাবে না। গণআন্দোলনের মাধ্যমে গণবিরোধী এই সরকারকে হটিয়ে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে।’
মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারাও বিদ্যুৎ ও ওয়াসার পানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানান। পাশাপাশি তাঁরা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button