রাজশাহী সংবাদ

রাবি ভিসি-প্রোভিসি’র পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন: আচার্যকে খোলা চিঠি

রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার পদত্যাগের দাবিতে আচার্য বরাবর খোলা চিঠি দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

আজ রোববার (১৩ অক্টোবর) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে ‘সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে রাবি’ ব্যানারে মানববন্ধন শেষে খোলা চিঠি পাঠ করেন ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থী রঞ্জু হাসান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যাটেরিয়াল সায়েন্স বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রিদম শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের যারা ফার্স্ট হয়েছে তারা চাকরি পায়নি। কিন্তু ঠিকই উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের মেয়ে-জামাই চাকরি পেয়েছে। এছাড়া নুরুল হুদা নামের একজন শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ দিতে চাওয়া এটি কোন নৈতিকতার মধ্যে পড়ে।

বক্তারা আরও বলেন, বুয়েটে আবরার হত্যা হয়েছে। রাবিতে তরিকুলকে হাতুড়ি দিয়ে পেটানো হয়েছে। আপনারা ভয় পান কেন? আমরা সংঘবদ্ধ থাকলে তাদের বিপক্ষে কথা বলতে পারবো। নাকি তাদের মার খেতে পছন্দ করেন? অন্যান্য শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন রাখেন তারা

এ সময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান দুর্নীতি, নিয়োগ-বাণিজ্য, উপাচার্যের জয় হিন্দ স্লোগান, উপ-উপাচার্যের ফোনালাপ ফাঁস ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বিবেচনায় আচার্য বরাবর ৬টি দাবি পেশ করেন তারা। দাবিগুলো হলো-আবরার হত্যায় জড়িত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত ও বিভিন্ন সময়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী হত্যা ও নির্যাতনের বিচার করা, রাবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যে অপসারণ ও সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসন নিশ্চিত করা, সন্ত্রাস-দখলদারিত্বমুক্ত গণতান্ত্রিক শিক্ষাঙ্গন নিশ্চিতে রাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা, হলে সিট বাণিজ্য, রাজনৈতিক ব্লক ও ছাত্র নির্যাতন বন্ধ করা, গবেষণাখাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে বাজেট বাড়ানো এবং ভারতের সাথে সম্পাাদিত অসম চুক্তিসমূহ বাতিল করার দাবি জানান তারা।

এসময় ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মহব্বত হোসেন মিলন, ইসরাফিল আলম, ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থী রঞ্জু হাসানসহ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে রাবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পদত্যাগ, আবরারসহ বিভিন্ন সময় সংঘটিত হত্যার বিচার দাবিতে দুপুর ১২টায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগ বাণিজ্য, চলমান দুর্নীতি, উপ-উপাচার্যের ফোনালাপ ফাঁস বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। তারা দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পরও তারা সুষ্পষ্ট ব্যাখা দিতে পারেননি। ফলে এর দায় উপাচার্য ও উপ-উপাচার্য এড়াতে পারেন না। তাই অবিলম্বে তাদের সেচ্ছায় পদত্যাগ করার আহ্বান জানান।

বক্তরা আরও বলেন, ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা রাতভর আবরারকে নির্যাতন করে মৃত্যু নিশ্চিত জানার পর সিঁড়িতে ফেলে রাখে। এই দেশে তনু, সাগর-রুনি, বিশ্বজিৎ হত্যার বিচারের নামে তালবাহানা করা হয়েছে। তাছাড়া রাবিতেও যত হত্যাকান্ড হয়েছে তার প্রকৃত বিচার এখনও পাওয়া যায়নি। তাই অনবিলম্বে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল করে এসব অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তারা।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button