রাজশাহী সংবাদ

রাবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের অপসারণ চায় ৫৮ শিক্ষক

রাবি প্রতিনিধি : মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের ৫৮ জন শিক্ষক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক এম আবদুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার অপসারণ দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন।

শুক্রবার (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ওই শিক্ষকদের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এ বিষয়ে শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষকরা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার দুইটি পৃথক দুষ্কর্ম দেশের গণমাধ্যম, সুশীল সমাজের সদস্য এবং সামাজিক মাধ্যমে সক্রিয়-জনদের মতো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের সদস্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। গত ২৬ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে এক সেমিনারে বক্তৃতা শেষে উপাচার্য ‘জয় বাংলা’, ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ এবং ‘জয় হিন্দ’ স্লোগান বক্তৃতা শেষ করেন। এটি একটি পরিকল্পিত নকশা। তিনি তার দুর্নীতি ও অপকর্ম থেকে জনদৃষ্টি অন্যত্র সরিয়ে দেয়ার কৌশল হিসেবে ব্যবহার করেছেন। উপাচার্যের ‘জয় হিন্দ’ বলার পক্ষে জনসংযোগ দপ্তর যে ধূর্ত ব্যাখ্যা গণমাধ্যমে হাজির করেছে তাতে প্রশাসনের দুরভিসন্ধি স্পষ্টভাবে প্রকাশিত হয়েছে। আমরা মনে করি বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সর্বাত্মক সহায়তা দানকারী প্রতিবেশী ভারতের রাজনৈতিক এবং সামরিক স্লোগান ‘জয় হিন্দ’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কর্তৃক উচ্চারণ বাংলাদেশের রাষ্ট্রসত্ত্বার সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘উপ-উপাচার্য চৌধুরী মো. জাকারিয়ার ফাঁস হয়ে যাওয়া অডিও থেকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে তিনি নিয়োগ বাণিজ্যে স্পষ্টভাবে নিয়োজিত। বিষয়টি অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান প্রশাসনের বিরুদ্ধে শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়োগে আর্থিক লেনদেন যে চালু আছে এই ফোনালাপ তার সত্যতা প্রমাণ করেছে। উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য চৌধুরী জাকারিয়ার বিবেকহীন এই সমস্ত কর্মকাণ্ডে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। তাদের মানবতাহীন নৈতিকতা বিবর্জিত এসব অপকর্মের প্রতি আমরা ধিক্কার জানাই।’

বিবৃতিতে শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের সর্বস্তরে দুর্নীতি বিরোধী অভিযান শুরু হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও মূল্যবোধ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে দুর্নীতিমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য যে, অভিযাত্রা চলছে সেখানে প্রধানমন্ত্রী আমাদের আদর্শ এবং তিনি আমাদের আশ্রয়। আমরা বিশ্বাস করি প্রধানমন্ত্রী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য চৌধুরী জাকারিয়ার সাম্প্রতিক বিবেকহীন আচরণের একই সঙ্গে তাদের নিয়োগ বাণিজ্যের তদন্ত এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করবেন। রাবির মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের সদস্যগণ দুর্নীতিবাজ এবং নিয়োগ বাণিজ্যের নিবেদিত প্রশাসকদের অপসারণ দাবি করছে।                     

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button