রাজশাহী সংবাদ

রাবিতে চেয়ার টেবিল পেতে ভর্তিচ্ছুদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ

রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৯-২০ স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থীদের কাছে থাকা ব্যাগ, মোবাইল,ঘড়ি রাখার নাম করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে বিশ্ব বিদ্যালয়ের এক দল শিক্ষার্থী।

সোমবার সকাল থেকে ওই গ্রুপটি রাবির ড. জগদীশ চন্দ্র বসু ভবন,মমতাজউদ্দিন কলা ভবন লাইব্রেরি সংলগ্ন স্থান গুলোতে টেবিল চেয়ার পেতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্থ নিচ্ছে ।

রাবি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে জানান , পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগ থেকে চক্রটি চেয়ার টেবিল পেতে মোবাইল,ঘড়ি রাখার নাম করে ১০-২০ টাকা নিচ্ছে । এতে করে বিব্রতর কর অবস্থায় পড়ছেন ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থী ও তাদের আসা অভিভাবকেরা।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, রাবি মাকেটিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী চঞ্চলের নির্দেশে টেবিল চেয়ার পেতে শিক্ষার্থীর কাছ থেকে টাকা উত্তোলন করেন রাবি শিক্ষার্থী, নাজিম উদ্দিন, জুয়েল নুর আলম সহ আরো অনেকে। এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ে এত কঠোর নিরাপত্তার পরেও ওই শিক্ষার্থীরা কিভাবে চেয়ার টেবিল পেতে বসে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে এনিয়ে অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

অন্যদিকে, অর্থ নেওয়ার কথা স্বীকার করে রাবি শিক্ষার্থী চঞ্ল বলেন এখন আর কারো কাছে টাকা নেওয়া হচ্ছে না। কেন আপনি টাকা উঠোনোর নির্দেশ দিয়েছেন এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আপনারা হয়তো ভুল শুনেছেন।

অপর শিক্ষার্থী নাজিম উদ্দিন জানান, আমার টাকাটা ব্যবসা করার জন্য নেই নাই। আমার এই টাকা দিয়ে চেয়ার টেবিল ভাড়া উঠানোর পাশাপাশি যে টাকা আয় হবে সে টাকা গরীর দুখীদের মাঝে দেওয়া হবে। কিন্তু আপনারা সাংবাদিক আমাদের এখানে এসে ঝামেলা করছেন। আমারা সব উঠিয়ে দিয়েছি । এছাড়াও শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হয়েছে। এনিয়ে সংবদ প্রকাশ না করার জন্য বার বার নিষেধ করেন এবং প্রতিবেদককে তার সাথে দেখা করার জন্য অনুরোধ জানান ওই শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে রাবি প্রক্টর লুৎফর রহমান বললেন, ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থীদের কাছে থাকা ব্যাগ, মোবাইল,ঘড়ি রাখার নাম করে যারা অর্থ নিচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, আজ সোমবার ও আগামীকাল মঙ্গলবার দুই দিনে তিনটি ইউনিটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ২১ অক্টোবর প্রথম দিন সকাল ৯টা থেকে ১০টা।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button