পুঠিয়ারাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিনামূল্যে বই বিতরণেও চাঁদা আদায়ের অভিযোগ

পুঠিয়া প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় চলছে বই উৎসব। সারাদেশের ন্যায় এখানেও নতুন বছরের প্রথমদিন প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে। কিন্তু ভিন্ন চিত্র শোনা গেছে উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নে অবস্থিত রঘুরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বিনামুল্যে বই বিতরণের কথা থাকলেও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ তুলেছেন অভিভাবকরা। যদিও স্কুলের প্রধান শিক্ষক চাঁদা আদায়ের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

আজ (১ জানুয়ারী) বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রঘুরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হয়। এসময় শিক্ষার্থীদের কাছে ৫০ টাকা হারে চাঁদা আদায় করা হয়েছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা।

স্কুল সুত্রে জানা গেছে, রঘুরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণি থেকে শুরু করে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ২০০ জন শিক্ষার্থীর মাঝে নতুন বই বিতরণ চলছে। প্রথমদিন উপস্থিত কিছু শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হলেও পর্যায়ক্রমে সকল শিক্ষার্থীদের নতুন বই দেয়া হবে। এদিকে স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক মানজুর রহমান, শামিমা আক্তার ও পারভেজ রানা অভিযোগ করে জানান, সকালে বই বিতরণ চলাকালে প্রতিটি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৫০ টাকা হারে চাঁদা আদায় করে তাদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হুসনেয়ারা ও শুরজান বেগম এ চাঁদার টাকা আদায় করেছেন। টাকাগুলো স্কুলের বিল্ডিং নির্মাণে ব্যয় করা হবে বলে স্কুল কর্তৃপক্ষ অভিভাবকদের জানিয়েছেন। তারা এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে কর্তৃপক্ষকে তদন্তপুর্বক ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

তবে বই বিতরণের সময় চাঁদা আদায়ের বিষয়টি অস্বীকার করে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসমত আরা বলেন, গতবার পিকনিকের জন্য শিক্ষার্থীদের কাছে চাঁদা আদায় করা হয়েছিলো। তবে আজ বই বিতরণের সময় কোন প্রকার চাঁদা আদায় করা হয়নি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওলিউজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমিও শুনেছি। বিষয়টি খোঁজ নিচ্ছি। অভিযোগের সত্যতা থাকলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button