গোদাগাড়ীরাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে অবৈধভাবে পুুকুর খননে তিনজনকে কারাদন্ড

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: অবৈধভাবে পুকুর খনন করার অপরাধে রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তিনজনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

উপজেলার পাকড়ি ইউনিয়নের নামো বিল্লি গ্রামের বিলে ২টি (ইস্কেবেটর) ভেকু মেশিন দিয়ে সরকারি আদেশ অমান্য করে তারা পুকুর খনন করছিলেন।

আজ বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) উপজেলার পাকড়ী ইউনিয়নের নামো বিল্লি মাঠে ৩০ বিঘা ধানী জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করার সময় হাতেনাতে ধরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হক ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদেরকে এ সাজা প্রদান করে। এসময় ২টি (ইস্কেবেটর) ভেকু মেশিন অকেজো করার জন্য প্রয়োজনীয় মালামাল জব্দ করা হয়।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন উপজেলার পাকড়ী ইউনিয়নের নামো বিল্লি গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে দুলাল হোসেন (৫৪), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুর গ্রামের গোলাম রসুলের ছেলে ইব্রাহিম হোসেন(২২) এবং পাবনা জেলার আমিনপুর উপজেলার রানীনগর গ্রামের আক্কাশ মোল্লার ছেলে সিহাব হোসেন (২৩)।

পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে পাকড়ী ইউনিয়নের নামো বিল্লি বিলের মাঠে ৩০ থেকে ৩৫ বিঘা করে ৩টি পুকুরে মোট ১০০ বিঘা ধানী জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করছিলো একটি চক্র। এমন সময় খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তিনজনকে আটক করে জনসম্মুখে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হক ভ্রাম্যমাণ আদালত বালু মহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারা লঙ্ঘনের অপরাধে তাদেরকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হক বলেন, সরকারী নির্দেশ ছাড়া অবৈধভাবে পুকুর খনন করে আবাদী জমি নষ্ট করার দায়ে তাদেরকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এরপর আর কোন দিন কেউ অবৈধভাবে পুকুর খনন করলে আরও কঠিন শাস্তি প্রদান করা হবে। অবৈধভাবে পুকুর খননরোধে এই ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button