রাজশাহী সংবাদ

রাজশাহীতে মাদকবিরোধী কনসার্টের টিকিট ফি না নিয়ে সবার জন্য উন্মুক্ত হলে ভালো হতো: জামাত খান

নিজস্ব প্রতিবেদক : মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে সারাদেশে কনসার্টের উদ্যোগ নিয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের সঙ্গে আছে ‘চ্যানেল লাইভ এন্টারটেইনমেন্ট’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। ধারাবাহিক এই কনসার্ট শুরু হচ্ছে আগামী ৩ জানুয়ারি থেকে। প্রথম কনসার্টটি হবে রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে।

এই কনসার্টে প্রবেশমূল্য ধরা হয়েছে ২০০ এবং ১০০ টাকা। স্টেডিয়ামের মাঠে চেয়ারে বসতে হলে লাগবে ২০০ টাকা। আর স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে বসতে হলে লাগবে ১০০ টাকার টিকিট। বুধবার থেকে এজেন্টের মাধ্যমে রাজশাহীতে টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। বিশিষ্টজনরা বলছেন, জনসচেতনমূলক মাদকবিরোধী এ কনসার্টে টিকিটের প্রয়োজনীয়তা না থাকলেই ভালো হতো।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও সমালোচনা লক্ষ্য করা গেছে। হাসির ইমো ব্যবহার করে মাইনুর রেজা সাদ নামে এক ব্যক্তি ফেসবুকে লিখেছেন, ‘কনসার্ট করে মাদক ঠেকানোর ব্যবস্থা!’। সাজেদুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি সেখানে মন্তব্য করেছেন, ‘কনসার্ট কিভাবে মাদক কমাতে সাহায্য করবে আমার বুঝে আসে না। বরং কনসার্ট করে কিছু মানুষকে মাদক গ্রহণের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে।’

সামাজিক সংগঠন রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান বলেন, মাদকবিরোধী কনসার্টে জনসচেতনতা তৈরি হতে পারে। তবে সেটা বিনামূল্যে হওয়া উচিত ছিলো। এই কনসার্টে তো সাধারণ শিক্ষার্থী আর খেটে খাওয়া মানুষ প্রবেশ করতে পারবে না। অথচ মাদকের প্রভাবটা এদের ক্ষেত্রেই বেশি লক্ষ্য করা যায়। তাই প্রকৃতপক্ষে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে হলে কনসার্টে প্রবেশমূল্য রাখা উচিত নয়। তাহলে সবাই অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে।

তবে টিকিট থাকলেও ভালো সাড়া পাবার আশা করছেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রাজশাহী উপ-অঞ্চলের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ লুৎফর রহমান। তিনি বলেন, কনসার্টে আমরা ভালো সাড়া পাব বলে আশা করছি। আজ (বুধবার) থেকেই এজেন্টের মাধ্যমে টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। চ্যানেল লাইভ এন্টারটেইনমেন্ট কনসার্টের আয়োজন এবং টিকিট বিক্রিসহ সমস্ত কাজ করছে।

চ্যানেল লাইভের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কণ্ঠশিল্পী অনন্যা রুমা বলেন, মাদকের কালো থাবা তরুণ সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। এ কারণে দেশব্যাপী মাদক প্রতিরোধে জনসচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে এই কনসার্টের আয়োজন করা হচ্ছে। ২০২০ সালে দেশের ৬৪ জেলাতেই এই কনসার্টের আয়োজন করা হবে। শুরু হচ্ছে রাজশাহীতে। এই কনসার্টে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ যাতে অংশগ্রহণ করতে পারে সে জন্য টিকিটের দাম খুব সামান্যই ধরা হয়েছে। কারণ, আয়োজনে আমাদের অনেক খরচ আছে। আমাদের বিশ্বাস, যে লক্ষ্য নিয়ে এই আয়োজন, তা পুরোপুরি সফল হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ৩ জানুয়ারি দুপুর ২টায় দর্শকের জন্য রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামের দরজা খুলে দেওয়া হবে। কনসার্ট শুরু হবে বিকেল ৪টায়। সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে শিল্পীদের পরিবেশনা। পারফর্ম করবেন অভিনেত্রী পপি, অপু বিশ্বাস, অভিনেতা ফেরদৌস, কণ্ঠশিল্পী কনা, মিলা, ইমরান, পূজা ও সুজন আরিফ।

কোরিওগ্রাফিতে থাকবে সোহাগ ড্যান্স গ্রুপ। উপস্থাপনা করবেন মডেল জান্নাতুল পিয়া। শিল্পীদের পরিবেশনার পাশাপাশি থাকবে বৈচিত্র্যময় লেজার শো। কনসার্টের উদ্বোধন করবেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। উপস্থিত থাকবেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. জামাল উদ্দীন আহমেদ ও পরিচালক নুরুজ্জামান শরিফ।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button