মোহনপুররাজশাহী সংবাদ

মোহনপুরে জোর করে অমগাছ কেটে ফেলার অভিযোগ

মাজেদুর রহমান (সবুজ) : রাজশাহীর  মোহনপুরে জোর করে  আমগাছ কেটে ফেলা ও জমি থেকে সরিষা তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর আলম বাদি হয়ে পৃথক পৃথক অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ ও এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ১৯২০ সালের সিএস খতিয়ান মূলে ৩.০৭ জমির মালিক উপজেলার ভীমনগর গ্রামের কুকরা মন্ডল। কুকরা মন্ডলের মৃত্যু র পর তার ওয়ারিসগন জমি ভোগ দখল করে আসছেন। উক্ত জমি ভোগদখলের জন্য মোহনপুর উপজেলার ভীমনগর গ্রামের মৃত দিদার বক্সের ছেলে পিয়াস বক্স আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৮৭/২০১৮। মামলাতে ১.৪৫ ও ২.৬৯ একর জমি ওয়ারিসগণ মৌখিল ভাবে দানের কথা উল্লেখ করেন। সত্যটা না থাকায় বাদি আদালত থেকে মামলাটি  তুলে নেন। আবারও উক্ত জমি ভোগদখলের জন্য আদালতে আরও একটি মামলা দায়ের করেন পিয়ার বক্স। মামলা নং ৫০/১৮। বতমানে মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। উভয় পক্ষের মধ্যে আইন শৃঙ্খলার অনতি যেন না সেজন্য মোহনপুর থানা পুলিশ সতকীকরনের নোটিশ দিয়েছেন।
উপজেলার ভীমনগর গ্রামের মৃত দবির মন্ডলের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম পৈতৃক সূত্রে  সম্পত্তি খাজনা খারিজ করে ভোগ দখল করে আসছিল। জমির সরিষা ছিল। থানা পুলিশের সতকীকরনের নোটিশ দেয়ার পরেও গত ১ মাচ সকাল ১১টার সময় পিয়ার বক্সের ছেলে উপজেলার  ধুরইল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম ক্ষমতার দাপট খাতিয়ে তার লোকজন নিয়ে জাহাঙ্গীর আলমের জমি থেকে জোর করে সরিষা তুলে নিয়ে যায়। জাহাঙ্গীর আলম বাধা দিলে হত্যার হুমকি প্রদান করে বলে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে। ইতিপূর্বে যুবলীগ সভাপতি আশরাফুল ইসলাম জাহাঙ্গীর আলমের জমিতে থাকা ১৫ টি আমগাছ কতৃন করেন। পুলিশ গিয়ে আমগাছের গুল জব্দ করে রেখেছে।
মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, উক্ত জমিতে আদালতের নির্দেশে উভয়পক্ষকে সতর্কীকরন নোর্টিশ প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন জমি সংক্রান্ত নিষশ নিয়ে উভয় পক্ষের অভিযোগ হয়েছে। বিষয়গুলো তদন্ত করা হচ্ছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button