তানোররাজশাহী সংবাদ

মুণ্ডুমালা স্কুলে টাকা নিয়ে বই বিতারনে প্রধান শিক্ষককে শোকজ

তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোরের মুণ্ডুমালা সরকারী উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে টাকা নিয়ে সরকারে দেয়া বিনামূল্যে বই বিতারণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দেয়া হয়েছে।

রবিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু স্বাক্ষরিত একটি শোকজ নোটিস স্কুলে প্রধান শিক্ষককে হাতে পৌছে দেয়া হয়। রবিবার দুপুরে নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার আমিরুল ইসলাম।

নোটিশে বলা হয়েছে বছরের প্রথম দিনটি ছিল দেশজুড়ে বই উৎসব। তানোর উপজেলার একমাত্র সরকারী মুণ্ডুমালা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বছরের প্রথম দিন বই না দিয়ে খালি হাতে ফিরিয়ে দেয়া এবং ২য় দিন বৃহস্পতিবার সরকারে বিনামূল্যে বই বিতারণ কালে শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে সেশন ফি নামে এক হাজার ১০০ টাকা করে আদায় করা হয়েছে। যা সরকারী আইন লঙ্ঘন সঙ্গে সরকারে ভাবমুত্তিক্ষুণ হয়েছে। তদুপরি আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে শোকজ নোটিশের উল্লেখ্য যোগ্য জবাব দিতে বলা হয়েছে।

তানোর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আমিরুল ইসলাম বলেন,রবিবার সকালে মুণ্ডুমালা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামেল মার্ডিকে শোকজ চিঠি পাঠানো হয়েছে। সরকারী স্কুল হওয়াই এ স্কুলে সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার। সভাপতি ও নির্বাহী ক্ষমতা বলে শোকজ নোটিশে স্বাক্ষর করেছেন ইউএনও মহোদন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু জানান, প্রধান শিক্ষককে শোকজ চিঠি পাঠানো হয়েছে। তিন কর্মদিবসের মধ্যে জবাব চাওয়া হয়েছে। সন্তষজনক জবাব না পেলে পরোবর্তি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য,বছরের প্রথম দিন সারা দেশে ছিল বই উৎসব। কিন্ত একমাত্র মুণ্ডমালা ¯ু‹লে শুধু মাত্র সেশন ফি না পেয়ে বছরের প্রথম দিন প্রায় ৪০০ শিক্ষার্থীকে নতুন বই না দিয়ে ফিরিয়ে দেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। এতে শিক্ষার্থী ও স্থানীয় অভিভাবকদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভে সৃষ্টি হয়।

এর প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসার সেশন ফি ছাড়াই বই বিতারণ করা দিনের্শ দেন। কিন্ত স্কুল কর্তৃপক্ষ তাদের নিদের্শনা না মেনে ২য় দিন এক হাজার একশ টাকা ১৪০ জন শিক্ষার্থীকে সরকারে দেয়া বিনামূল্যের দেন। এ নিয়ে স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক সহ বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের টনক নড়ে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button