পুঠিয়ারাজশাহী সংবাদ

পুঠিয়ায় অপহৃত কলেজছাত্রী উদ্ধার, প্রেমিক গ্রেফতার

পুঠিয়া প্রতিনিধি : রাজশাহীর পুঠিয়ায় অপহৃত এক কলেজছাত্রীকে উদ্ধার ও পলাশ আহম্মেদ (২৫) নামের এক যুবককে করেছে পুলিশ।

রবিবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার ভালুকগাছি ইউনিয়নের বাঁশবাড়ি গ্রামে অবস্থিত একটি বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত ১৪ অক্টোবর কলেজে যাওয়ার পথে তাকে অপহরণ করা হয় বলে মামলা সূত্রে জানা যায়। পরে এ ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে ওই যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ১৬/১৯.।

গ্রেফতারকৃত প্রেমিক পলাশ আহম্মেদ (২৫) উপজেলার শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের সরগাছি গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে এবং উদ্ধারকৃত কলেজছাত্রী পুঠিয়া মহিলা ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী।

এদিকে উদ্ধারকৃত কলেজছাত্রীর দাবি, ওই যুবকের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে তারা পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে। তবে বিয়ের কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি তারা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ অক্টোবর সকালে কলেজে যাচ্ছিল ওই ছাত্রী। এসময় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ফুসলিয়ে পলাশ তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুজির পরও কলেজছাত্রীর কোনো খোঁজ-খবর পায়নি পরিবার।

মামলার বাদী ছাত্রীর বাবা নায়েব আলী জানান, ঘটনার দীর্ঘ একমাস পর তার মেয়েকে আটকে রাখার খবর পেয়ে তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। পরে পুুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

তবে উদ্ধারের পর কলেজ ছাত্রী জানায়, তাদের দু’জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিষয়টি পরিবারের কাছে জানালে পরিবার তাদের সম্পর্ক মেনে না নেয়ায় তারা বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে ১ লাখ এক টাকা দেনমোহরে বিয়ে করে। তবে বিয়ের কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি তারা।

পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, মেয়েটির বাবার দায়ের করা অপহরণ মামলায় যুবককে গ্রেফতার দেখিয়ে আগামীকাল সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

আর উদ্ধারকৃত কলেজছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হবে। বিয়ের ব্যপারে তিনি বলেন, তারা আমাদের কাছে বিয়ের কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button