সারাদেশ

মুক্তিপণের টাকা দিয়ে লাশ পেলেন পিতা

চলমান ডেস্কঃ  হাজারীবাগ এলাকা থেকে অপহূত মাদ্রাসাছাত্র ইব্রাহিমের (১০) মরদেহ শনিবার গাজীপুরের মহানগরীর মিরেরগাঁও এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ইব্রাহিম হাজারীবাগ এলাকার মনির হোসেনের ছেলে। সে স্থানীয় একটি ক্যাডেট মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্র্রেণির ছাত্র ছিল।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানার ওসি মোহাম্মদ আলমগীর ভূঁইয়া জানান, শনিবার সকালে সিটি মিরেরগাঁও এলাকায় রেললাইনের পাশে ইব্রাহিমের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ঐ মাদ্রাসাছাত্রকে অপহরণের পর শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নিহতের পিতা মনির হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে তার ছেলে মাদ্রাসা থেকে বাসার উদ্দেশে বের হয়ে আর ফেরেনি। এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে হাজারীবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। শনিবার সকালে গাজীপুর থেকে জনৈক ব্যক্তি তার ছেলের পাঞ্জাবির পকেট থেকে পাওয়া পরিচয়পত্রে উল্লেখিত মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে তাকে ফোন করে জানালে তিনি গিয়ে ছেলের লাশ শনাক্ত করেন। তিনি আরো জানান, অপহরণকারীরা শুক্রবার মোবাইলে ফোনের মাধ্যমে তার ছেলের মুক্তির জন্য ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তিনি বিকাশের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা অপহরণকারীদের দেন। তিনি অভিযোগ করেন, তার ছেলে অপহূত হওয়ার পর থেকে অপহরণকারীরা তার কাছে মুক্তিপণের টাকা দাবি করতে থাকার বিষয়টি বারবার থানা পুলিশকে জানালেও তারা অপহূত ইব্রাহিমকে উদ্ধারে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তদন্তকারী কর্মকর্তা হাজারীবাগ থানার এসআই আ. রহমান জানান, অপহরণকারীদের ধরার জন্য অভিযান চলা অবস্থায় শনিবার তারা খবর পান নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ গাজীপুর পুলিশ উদ্ধার করেছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button